যৌতুক না দেওয়ায় দ্বিতীয় বিয়ে

যুবক কারাগারে

পটিয়া প্রতিনিধি

55

দাবিকৃত যৌতুক না দেয়ায় প্রথম স্ত্রীর অনুমতি না নিয়ে দ্বিতীয় বিয়ে ও প্রথম স্ত্রীকে যৌতুকের জন্য নির্যাতনের অভিযোগে দায়ের করা মামলায় পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হয়েছে স্বামী মো. বেলাল উদ্দিন। আদালতের গ্রেপ্তারি পরোয়ানামূলে গত বৃহস্পতিবার রাতে পটিয়া থানা পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। তার বাড়ি কর্ণফুলী উপজেলার শিকলবাহা ইউনিয়নস্থ আবদুল আলী সিকদারের বাড়ি এলাকায়। সে ওই এলাকার বাসিন্দা মৃত আবদুর সাত্তারের পুত্র। তার বাড়ি নবসৃষ্ট কর্ণফুলী উপজেলায় হলেও এখনো পটিয়া থানাধিন।
প্রথম স্ত্রী সাবিহা শেলীর দায়ের করা
মামলা সূত্রে জানা যায়, চরপাথরঘাটা ইউনিয়নের ইছানগর এলাকার বাসিন্দা মৃত সামশুল আলমের কন্যার সাথে বেলালের সামাজিকভাবে ২০০৭ সালে বিয়ে হয়। তাদের ঘরে একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। বিয়ের পর থেকে স্বামী বিভিন্ন সময় যৌতুক দাবি করতো। এ জন্য তাকে মারধর করা হতো। এ ধরণের একটি ঘটনায় গত বছর অক্টোবর একটি ফৌজদারী মামলা হয়। এরপর থেকে স্বামী প্রথম স্ত্রী ও সন্তানের ভরণপোষণ দেয়া বন্ধ করে দেয়। এরই মাঝে স্বামী বেলাল দ্বিতীয় বিয়ে করেন। এসব অভিযোগে গত বছরের ১৮ অক্টোবর আদালতে মামলা দায়ের করেন প্রথম স্ত্রী। আদালত ওই মামলায় স্বামী বেলালের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন।
পটিয়া থানার এসআই মামুন জানান, আদালতের পরোয়ানামূলে আসামি বেলাল উদ্দিনকে গত বৃহস্পতিবার রাতে তার বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাকে শুক্রবার (গতকাল) কারাগারে প্রেরণ করা হয়।