যুক্তরাষ্ট্রের ৬ হাজার কোটি ডলার তহবিলের অংশ চায় বাংলাদেশ

30

উন্নয়নশীল দেশে বিনিয়োগের জন্য গত বছর যুক্তরাষ্ট্র ৬ হাজার কোটি ডলারের একটি তহবিল গঠন করেছে।
বাংলাদেশ এই তহবিলের মাধ্যমে দুই দেশের মধ্যে অর্থনৈতিক সহযোগিতা আরও বৃদ্ধি করতে চায়।
পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা বলেন, বাংলাদেশ এটিকে সুযোগ হিসেবে দেখছে। কারণ, এই তহবিল থেকে নিম্ন মধ্যম আয়ের দেশে বিনিয়োগ করতে চায় যুক্তরাষ্ট্র।
এটি বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্র উভয়ের জন্য লাভজনক হতে পারে বলে মন্তব্য করেন ওই কর্মকর্তা।
তিনি বলেন, বাংলাদেশে যুক্তরাষ্ট্রের বিনিয়োগ আছে। কিন্তু আমরা বহুমুখী বিনিয়োগ চাই। যুক্তরাষ্ট্রের বড় বিনিয়োগ হচ্ছে জ্বালানি খাতে। এখানে সুযোগ আছে এই তহবিলের মাধ্যমে মার্কিন কোম্পানিগুলোকে আকৃষ্ট করে অন্যান্য উৎপাদনশীল খাতে বিনিয়োগ করার।
এই তহবিল ‘বিল্ড আইন’ দ্বারা গঠিত হয়েছে এবং এর মাধ্যমে মার্কিন বেসরকারি খাতকে বাজার খুঁজে বের করতে সহায়তা, বিনিয়োগ সহায়তা, ইনসুরেন্স এবং টেকনিক্যাল সহায়তা দেওয়া হবে। গত ফেব্রæয়ারিতে বিল্ড অ্যাক্টটি ডেমোক্র্যাট ও রিপাবলিকান উভয় দলই সমর্থন করে এবং অক্টোবর মাসে এটি মার্কিন সংসদে পাস হয়।
আরেকজন কর্মকর্তা বলেন, এই তহবিল থেকে সহায়তা পাওয়ার বিষয়টি নিয়ে পররাষ্ট্র সচিব এম শহীদুল হক এবং যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের আন্ডার সেক্রেটারি ডেভিড হ্যালের মধ্যে আগামী ২২ জানুয়ারি বৈঠকে অন্যান্য বিষয়ের সঙ্গে এই বিষয়টিও আলোচিত হবে।
তিনি বলেন, মার্কিন কর্তৃপক্ষ আগহী হলে আমরা তাদের একটি বিশেষায়িত অর্থনৈতিক অঞ্চল দিতে পারি, যেখানে তারা বিনিয়োগ এবং পণ্য উৎপাদন করতে পারবে।
এ ধরনের অর্থনৈতিক অঞ্চল চীন, জাপান, ভারতসহ অন্যান্য অনেক দেশকে বাংলাদেশ দিয়েছে।
যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় রফতানি বাজার এবং যুক্তরাষ্ট্র সেনসাস অনুযায়ী গত বছরের জানুয়ারি থেকে অক্টোবর মেয়াদে দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্যের পরিমাণ হচ্ছে ৭৮০ কোটি ডলার।
এরমধ্যে বাংলাদেশ রফতানি করেছে ৫২০ কোটি ডলার এবং আমদানি করেছে ১৬০ কোটি ডলার।