‘মেসি আর রোনালদোকে যোগ করলে পেলে পাওয়া যাবে’

6

পেলে নাকি ম্যারাডোনা?- ১৯৮৬ সালে আর্জেন্টিনা বিশ্বকাপ জয়ের পর থেকেই ইতিহাসের সেরা ফুটবলারের প্রশ্নের চলছে এই বিতর্ক। এর মধ্যে প্রায়ই যুক্ত হয় সমসাময়িক ফুটবলারদের নাম। এখন যেমন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো ও লিওনেল মেসিকেও আনা হয় ইতিহাসের সেরা ফুটবলারের প্রশ্নে।
তবে ব্রাজিলের ১৯৭০ সালের বিশ্বকাপ জয়ী দলের সদস্য এবং পেলেন দীর্ঘদিনের সতীর্থ তোস্তাও মনে করেন মেসি-রোনালদো তো নয়ই, ম্যারাডোনাও আসলে পেলের সমমানের ফুটবলার নন। মেসি ও রোনালদোকে যোগ করলে একজন পেলে পাওয়া যেতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন তোস্তাও। ১৯৭০ সালে পেলে শেষবারের মতো বিশ্বকাপ জেতেন। সেই আসরে খেলেছেন তোস্তাও। ফাইনাল ম্যাচে গোলের দেখা না পেলেও আসরে করেছিলেন দুই গোল।
সবমিলিয়ে ব্রাজিলের জার্সিতে ৫৪ ম্যাচে পেয়েছিলেন ৩২ গোলের দেখা। সম্প্রতি ব্রাজিলের ১৯৭০ সালের বিশ্বকাপ জয়ের ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে তোস্তাওয়ের সাক্ষাৎকার নিয়েছিল ফিফা। সেখানে তাকে জিজ্ঞেস করা হয় মেসি, রোনালদো ও ম্যারাডোনার সঙ্গে তুলনামূলক আলোচনায় পেলেকে কোথায় রাখবেন তোস্তাও? উত্তরে তিনি বলেন, ‘আমি মনে করি, পেলে তাদের সবার চেয়ে ভালো। আমার কাছে পেলের কোন তুলনা নেই। সে একজন কমপ্লিট ফুটবলারের চেয়েও বেশি কিছু। একজন ফরোয়ার্ডের যা যা দরকার, তার সবই ছিলো তার। এমনকি একটা খুঁতও নেই পেলের।’ ‘ম্যারাডোনা অসাধারণ ফুটবলার ছিলেন সন্দেহ নেই। তবে শারীরিক দিক থেকে পেলের মতো ফিট ছিলেন না ম্যারাডোনা। পেলের মতো এত গোলও করতে পারেনি ম্যারাডোনা। মেসিও দুর্দান্ত কিন্তু সে পেলের মতো হেড করতে পারে না। এমনকি দুই পায়ে শট করতেও তার দুর্বলতা স্পষ্ট।’ ‘ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো অনেক উঁচুমানের খেলোয়াড়।
কিন্তু পেলের সব সামর্থ্য তার নেই, পেলের মতো অসাধারণ সব সে দিতে পারে না। আপনি যদি রোনালদো ও মেসির সব গুণ একত্রে নিয়ে যোগ করেন, তাহলে হয়তো পেলের সঙ্গে তুলনা দেয়ার মতো খেলোয়াড় পেতে পারেন।’