মৃত্যুবার্ষিকীর সভায় বক্তারা চাক্তাই খাল খনন আন্দোলনে জেল খেটেছেন কফিল উদ্দিন

12

সাবেক গণপরিষদ সদস্য এম কফিল উদ্দীনের ৮ম মৃত্যুবার্ষিকীর সভায় বক্তারা বলেন, চাক্তাই খাল খনন আন্দোলনে ৯ মাস জেল খেটেছেন এম কফিল উদ্দিন। চট্টগ্রাম বন্দর রক্ষা আন্দোলনে এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর সহকর্মী হিসেবে তিনি কাজ করেছেন। মানুষের বিপদে-আপদে, সুখে-দুখে নিঃস্বার্থভাবে পাশে দাঁড়াতেন। দেশের নানা পট পরিবর্তনে কফিল উদ্দিন চেতনা ও আদর্শের বিষয়ে দৃঢ় ছিলেন। নানা প্রলোভনের প্রস্তাব ঘৃণার সাথে ফিরিয়ে দেন এবং মানবকল্যাণে নিজেকে উৎসর্গ করেছেন। মুক্তিযুদ্ধে তিনি অসামান্য অবদান রেখেছিলেন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান চট্টগ্রাম আসলেই এম কফিল উদ্দিনকে খুঁজে নিতেন। মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড চট্টগ্রাম মহানগরের উদ্যোগে আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের যুগ্ম আহ্বয়ক মিজানুর রহমান সজীব। স্মরণসভায় প্রধান অতিথি ছিলেন মুক্তিযোদ্ধা সংসদ চট্টগ্রাম মহানগরের ডেপুটি কমান্ডার মো. শহিদুল হক চৌধুরী সৈয়দ। বিশেষ অতিথি ছিলেন সহকারী কমান্ডার সাধন বিশ্বাস, মরহুমের পুত্র জাহেদ মুরাদ, মহানগর যুবলীগের সদস্য শেখ নাছির আহমেদ, কেন্দ্রীয় সন্তান কমান্ডের সদস্য সরওয়ার আলম মনি।
সন্তান কমান্ড চট্টগ্রাম মহানগরের সদস্য আশরাফুল হক চৌধুরী’র সঞ্চালনায় আলোচনায় অংশ নেন কোতোয়ালী থানা কমান্ডার সৌরেন্দ্র নাথ সেন, মুক্তিযোদ্ধা আবদুল লতিফ, পাঁচলাইশ কমান্ডার আহমেদ মিয়া, মুক্তিযোদ্ধা জাহাঙ্গীর আলম, শহিদুল ইসলাম দুলু, সংগঠনের যুগ্ম আহ্বায়ক সাজ্জাদ হোসেন, সদস্য সচিব কাজী রাজিশ ইমরান, সিনিয়র সদস্য চবি সহকারী অধ্যাপক ওমর ফারুক রাসেল, সৈয়দ এনায়েতুর রাব্বি, জয়নাল আবেদীন, সৈকত চক্রবর্ত্তী, খাজা সাইফুল, নাছির খান, সাঈদ রানা শিমুল। উপস্থিত ছিলেন মুক্তিযোদ্ধা মসরুর আহমদ, আনোয়ার হোসেন, শম্ভু দাশ, সৈয়দ আহমদ, অহিদুল্লাহ পাটোয়ারী, আমির আহমদ, মো. আজিম, প্রণাল চৌধুরী, মো. জাকিরিয়া, সন্তান কমান্ড নগরীর সদস্য শাহ্ আলম, জুনায়েদ আহমদ, জামাল হোসেন, জিসান কিবরিয়া, সামিউর রহমান, নিলয় সাকুল, কৌশিক চক্রবর্ত্তী, নিপ্পন চৌধুরী, মো. আরাফাত, সৈয়দ জাফর, মো. ফরিদ উদ্দিন প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি