মিয়ানমার থেকে এসেছে ১২শ মেট্রিক টন পেঁয়াজ

টেকনাফ প্রতিনিধি

62

টেকনাফ স্থলবন্দর দিয়ে মিয়ানমার থেকে প্রায় ১২শ মেট্রিক টন পেঁয়াজ এসেছে। তবে আগের তুলনায় দিন দিন পেঁয়াজ আমদানি বৃদ্ধি পেয়েছে। গতকাল সোমবার সকাল থেকে বিকাল সন্ধ্যা পর্যন্ত মিয়ানমার থেকে আসা ১ হাজার ১৯২ দশমিক ৬৭৯ মেট্রিক টন পেঁয়াজ খালাস করা হয়েছে।
টেকনাফ স্থলবন্দর শুল্ক কর্মকর্তা মোহাম্মদ আবছার উদ্দিন জানান, মিয়ানমার থেকে টেকনাফ স্থলবন্দরে এক দিনে প্রায় ১২’শ মেট্রিকটন পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে। তবে এখনো প্রায় ৫০ মেট্রিক টনের বেশি পেঁয়াজ খালাসের অপেক্ষায় রয়েছে। তাছাড়া মিয়ানমার থেকে আরো কয়েক’শ টন পেঁয়াজ ভর্তি একাধিক ট্রলার স্থলবন্দর পথে রওনা দিয়েছে বলে জানা গেছে।
টেকনাফ শুল্ক বিভাগ জানায়, গত ১ জানুয়ারি থেকে গতকাল ১৩ জানুয়ারি পর্যন্ত ১৩ দিনে মিয়ানমার থেকে ৪ হাজার ৭২১ দশমিক ৮৩৮ মেট্রিক টন পেঁয়াজ এসেছে। এর মধ্যে গতকাল সোমবার মিয়ানমার থেকে ৯ ব্যবসায়ীর কাছে আসা ১ হাজার ১৯২ দশমিক ৬৭৯ মেট্রিক টন পেঁয়াজ খালাস হয়েছে। এর আগের দিন ৭০০ দশমিক ৫৬৯ মেট্রিক টন পেঁয়াজ এসেছিল। এছাড়া গত বছরের ডিসেম্বর মাসে ১৪ হাজার ৬৪৭ দশমিক ৬০৯ মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে। গত নভেম্বর মাসে ২১ হাজার ৫৬০ দশমিক ৪৫২ মেট্রিক টন, অক্টোবর মাসে ২০ হাজার ৮৪৩ মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমদানি হয়েছিল। এছাড়া সেপ্টেম্বর ও আগস্ট মাসে যথাক্রমে ৩ হাজার ৫৭৩ মেট্রিক টন ও ৮৪ মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমদানি হয়েছিল। টেকনাফ স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষ ইউনাইটেড ল্যান্ড পোর্টের ব্যবস্থাপক মোহাম্মদ জসিম উদ্দীন চৌধুরী বলেন, এখন আগের মতো মিয়ানমার থেকে বেশি পরিমাণে পেঁয়াজ আমদানি করছেন আমদানিকারকরা। আমরা আমদানিকৃত পেঁয়াজ দ্রুততম সময়ে খালাসের বিষয়ে গুরুত্ব দিয়ে থাকি।