মাইজভাÐারে বাবা ভাÐারীর খোশরোজ মাহফিল

41

অসংখ্য ভক্ত জনতার অংশগ্রহণে মাইজভাণ্ডার দরবার শরীফে গাউছুল আ’যম সৈয়দ গোলামুর রহমান বাবা ভাণ্ডারীর (ক.) ১৫৮তম খোশরোজ শরীফ ১৪ অক্টোবর মাইজভাÐার দরবার শরীফে পালিত হয়েছে। রাতে মুনাজাতপূর্ব সংক্ষিপ্ত আলোচনায় দরবার শরীফের সাজ্জাদানশীন হযরত শাহ্সূফী মাওলানা সৈয়দ সাইফুদ্দীন আহমদ আল্-হাসানী (মাজিআ) বলেন, কোনো রাজশক্তির ভীতি প্রয়োগে কিংবা জোর জবরদস্তির মাধ্যমে বিশ্বের কোথাও ইসলাম প্রতিষ্ঠিত হয়নি। বরং আল্লাহর নৈকট্যধন্য আওলাদে রাসূল (দ.) ও আউলিয়ায়ে কেরামের মাধ্যমে যুগে যুগে দেশে দেশে ইসলামের দ্যুতি ও দ্বীনি ছড়িয়েছে। এদেশসহ সমগ্র বিশ্বে ইসলামের দাওয়াত প্রসারিত করেন আউলিয়ায়ে কেরাম। যা ইতিহাস স্বীকৃত। তাই, ইসলামের প্রচার-প্রসারের ক্ষেত্রে আউলিয়ায়ে কেরামের অবদানের অস্বীকৃতি মানে তাঁদের প্রতি অশ্রদ্ধা ও অবজ্ঞার শামিল। যা কখনো একজন ঈমানদারের কাছে আশা করা যায় না।
খোশরোজ শরীফ মাহফিলে বিশেষ অতিথি ছিলেন শাহজাদা সৈয়দ মাশুক-এ-মইনুদ্দীন আল্-হাসানী, শাহ্জাদা সৈয়দ হাসনাইন-এ-মইনুদ্দীন আল্-হাসানী। উপস্থিত ছিলেন হযরত সৈয়দ মইনুদ্দীন আহমদ মাইজভাÐারী ট্রাস্টের মহাসচিব অ্যাডভোকেট কাজী মহসীন চৌধুরী, আন্জুমান কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক খলিফা আলমগীর খান মাইজভাÐারী, সহসভাপতি কবির চৌধুরী, প্রচার সম্পাদক খলিফা মাওলানা রুহুল আমিন ভূঁইয়া চাঁদপুরী, সহপ্রচার সম্পাদক শাহ মুহাম্মদ ইব্রাহিম মিয়া মাইজভাÐারী, মাওলানা বাকের আনসারী, মাওলানা হাছান মাইজভাÐারী, মাওলানা নঈম উদ্দিন। সালাত সালাম শেষে মুসলিম উম্মাহর কল্যাণ, বিশ্বের নিপীড়িত মানবতার পরিত্রাণ এবং দেশ ও বিশ্ববাসীর শান্তি সমৃদ্ধি কামনায় আখেরি মুনাজাত পরিচালনা করেন হযরত শাহ্সূফী মাওলানা সৈয়দ সাইফুদ্দীন আহমদ আল্-হাসানী। পরে তবরুক বিতরণ করা হয়। বিজ্ঞপ্তি