মহিউদ্দিন চৌধুরীর কুলখানিতে নিহতদের স্বজনদের রীমা হল মালিকের অনুদান

35

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র ও চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি প্রয়াত জননেতা এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরীর কুলখানিতে গত ১৮ ডিসেম্বর নিহতদের পরিবারের সদস্যদের রীমা কনভেনশন হলের মালিক সাহাব উদ্দিন অনুদান দিয়েছেন। ১৬ জানুয়ারি নগর ভবনের সম্মেলন কক্ষে সেই দিনের দুঃখজনক ঘটনায় নিহতদের পরিবারের মাঝে অনুদান প্রদান করা হয়। এ উপলক্ষে অনুষ্ঠিত সুধি সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। এ সময় চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি নঈম উদ্দিন আহমদ চৌধুরী, সুনীল সরকার, সাংগঠনিক সম্পাদক ও চসিক প্যানেল মেয়র চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী, দৈনিক বীর চট্টগ্রাম মঞ্চের সম্পাদক সৈয়দ ওমর ফারুক, উপ দপ্তর সম্পাদক ও কাউন্সিলর জহর লাল হাজারী, মহানগর আওয়ামী লীগের সদস্য ও প্যানেল মেয়র নিছার উদ্দীন আহমদ মঞ্জু, সাবেক কাউন্সিলর ও মহানগর আওয়ামীলীগের সদস্য প্রকৌশলী বিজয় কুমার চৌধুরী কিষান, মহানগর আওয়ামীলীগের সদস্য বেলাল আহমদ, ৩৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর হাসান মুরাদ বিপ্লব, চট্টগ্রাম মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সুজিত কুমার দাশ, ২১নং জামালখান ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মোরশেদুল আলমসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন। রীমা কনভেশন হলের সত্ত¡াধিকারী ও দোকান মালিক সমিতির সিনিয়র সহ সভাপতি হাজী সাহাব উদ্দিন সুধি সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন। অনুদান প্রদান অনুষ্ঠানে নিহত ধনচন্দ্র সুশীল, ঝন্টু দাশ, লিটন ভট্টাচার্য্য, অলক ভৌমিক, প্রদীপ তালুকদার, লিটন দে, কৃষ্ণ পদ দাশ, রাহুল দাশ, সুধীর দাশ, সত্যব্রত ভট্টাচার্য্যরে পরিবারের সদস্যবৃন্দ অনুদান গ্রহন করেন। মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন প্রত্যেকের হাতে ২০ হাজার টাকা করে নগদ অর্থ তুলে দেন। প্রধান অতিথির বক্তব্যে সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, সেই দিনের মর্মান্তিক ঘটনায় নিহতদের ক্ষতিপূরণ করার মতো ক্ষমতা কারো নেই। তবে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন পরিচালিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নিহতদের সন্তানদের বিনা খরচে শিক্ষা গ্রহনের সুযোগ করে দেয়া হবে। এ ছাড়াও চসিকের পক্ষ থেকে এবং আমার নিজের পক্ষ থেকে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারদের পুনর্বাসনে সহযোগিতা করা হবে। তিনি বলেন, নিহত পরিবারের সদস্যদের পুনর্বাসনের জন্য সর্বোচ্চ উদ্যোগ গ্রহন করা হবে। বিজ্ঞপ্তি