মতবিনিময় সভায় এমপি মোশাররফ উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে নৌকা মার্কায় ভোট দিন

9

সাবেক গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপি বলেছেন, সারাদেশের ন্যায় চট্টগ্রামেও সরকারের উন্নয়নের অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখতে হলে আগামী ২৯ মার্চ চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন (চসিক) নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মনোনীত প্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা রেজাউল করিমকে নৌকা প্রতীকে বিজয়ী করতে হবে। এ জন্য মুক্তিযোদ্ধা, মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও স্বাধীনতার পক্ষের লোকজনদের সাথে নিয়ে পাড়া-মহল্লাসহ প্রত্যোকের ঘরে ঘরে গিয়ে নৌকার পক্ষে ভোট চাইতে হবে। রেজাউল করিমকে বিপুল ভোটে নির্বাচিত করে প্রধান প্রধানমন্ত্রীকে উপহার দিতে চাই। এ জন্য সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে। ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট দিতে ভোটারদেরকে কেন্দ্রে নিয়ে আসার ব্যবস্থা করতে হবে। একইসাথে ভোট কারচুপি ও কেন্দ্র দখল ঠেকাতে মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তিকে অতন্দ্র প্রহরী হিসেবে কাজ করতে হবে।
শনিবার সন্ধ্যায় নগরীর কে.সি.দে রোডস্থ প্রার্থীর প্রধান নির্বাচনী কার্যালয়ে আওয়ামী লীগের মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মুক্তিযোদ্ধা এম রেজাউল করিম চৌধুরীর সমর্থনে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। মুক্তিযোদ্ধাদের নির্বাচন পরিচালনা পরিষদ ও মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড, চট্টগ্রাম মহানগর কমিটি সভার আয়োজন করেন। মুক্তিযোদ্ধা সংসদ চট্টগ্রাম মহানগর ইউনিট কমান্ডার মোজাফফর আহমদের সভাপতিত্বে ও সন্তান কমান্ড কেন্দ্রীয় কমিটির সিনিয়র সদস্য সরওয়ার আলম চৌধুরী মনির সঞ্চালনায় মতবিনিময় সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এম.এ সালাম, মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কেন্দ্রীয় কাউন্সিলের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান আবুল হাসেম, এম.এ মনসুর, যুদ্ধকালীন কমান্ডার রফিকুল ইসলাম, মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক বদিউল আলম, মিরশ্বরাই উপজেলা চেয়ারম্যান মো. জসিম উদ্দিন, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার মো. সাহাবউদ্দিন, মহানগর মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ডেপৃটি কমান্ডার শহীদুল হক চৌধুরী সৈয়দ, জেলা সংসদের ডেপুটি কমান্ডার এ.কে.এম সরোয়ার কামাল দুলু, মহানগরীর সহকারী কমান্ডার পান্টু লাল সাহা, সহকারী কমান্ডার সাধন চন্দ্র বিশ্বাস, সহকারী কমান্ডার মো. ইউসুফ, সহকারী কমান্ডার খোরশেদ আলম (যুদ্ধাহত), সহকারী কমান্ডার এফ.এফ আকবর খান, কমান্ডার আবুল বশর ও মহানগর যুবলীগের আহবায়ক মহিউদ্দিন বাচ্চু।
অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন মুক্তিযোদ্ধা আবু তৈয়ব, নূর উদ্দিন, তোফায়েল আহমদ, চৌধুরী মাহবুবুর রহমান, মনিরুল ইসলাম, মো. ইউসুফ, সেলিম উল্লাহ, মঈনুল হোসেন, মো. সামসুল হুদা প্রমুখ। সভায় সর্বস্তরের মুক্তিযোদ্ধা ও সন্তান কমান্ডের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। বিজ্ঞপ্তি