ভেনেজুয়েলার পাঁচ কূটনীতিকের ওপর নিষেধাজ্ঞা যুক্তরাষ্ট্রের

2

ভেনেজুয়েলার শীর্ষস্থানীয় পাঁচ কূটনীতিকের ওপর নতুন করে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে যুক্তরাষ্ট্র। মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রের অর্থমন্ত্রী স্টিভ মানুচিন এক বিবৃতিতে এ ঘোষণা দেন। দক্ষিণ আমেরিকান দেশটির ওপর অর্থনৈতিক ও কূটনেতিক আরও জোরদার করার প্রচেষ্টার অংশ হিসেবে এ ঘোষণা দেওয়া হয়। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে তুরস্কভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আনাদোলু এজেন্সি। নির্বাচনি কারচুপির অভিযোগ আর অর্থনৈতিক সংকটের বিরুদ্ধে এ বছরের শুরুতে ভেনেজুয়েলায় বিক্ষোভ শুরু হয়। বিক্ষোভের সুযোগে ২৩ জানুয়ারি নিজেকে অন্তর্বর্তীকালীন প্রেসিডেন্ট ঘোষণা করেন বিরোধীদলীয় নেতা হুয়ান গুইদো।
প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরোর সরকারকে অবৈধ দাবি করে নিজেকে বৈধ অন্তর্বর্তী প্রেসিডেন্ট ঘোষণা করেন তিনি। এ মাসের গোড়ার দিকে এক ভিডিও বার্তায় আকস্মিক অভ্যুত্থানের ঘোষণা দেন গুইদো। ভিডিওতে তার সঙ্গে সামরিক বাহিনীর বেশ কয়েকজন সদস্যকেও দেখা যায়। এই অভ্যুত্থানে সমর্থন ঘোষণা করে যুক্তরাষ্ট্র। পরে কথিত ওই অভ্যুত্থান প্রচেষ্টা নস্যাতের ঘোষণা দেন প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো। তিনি বলেন, ভেনেজুয়েলা কখনোই সাম্রাজ্যবাদী শক্তির কাছে মাথানত করবে না। এমন পরিস্থিতিতেই মঙ্গলবার ভেনেজুয়েলার পাঁচ কূটনীতিকের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের ঘোষণা দেয় যুক্তরাষ্ট্র। এর মধ্য দিয়ে দুই দেশের মধ্যকার বিদ্যমান উত্তেজনা নতুন রূপ নিলো।
মঙ্গলবারের বিবৃতিতে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্রের অর্থ মন্ত্রণালয় ভেনেজুয়েলার ‘সাবেক প্রেসিডেন্ট’ নিকোলাস মাদুরোর নিপীড়নমূলক সরকারের পক্ষে কাজ করা ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের চিহ্নিত করছে, যারা দুর্নীতি ও মানবাধিকার লঙ্ঘনের মারাত্মক পর্যায়ে জড়িত রয়েছে। মাদুরোর কর্মকর্তাদের ওপর এই নিষেধাজ্ঞা কানাডা এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নের মতো আন্তর্জাতিক অংশীদারদের সঙ্গে আমাদের প্রচেষ্টার সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ। এই শনাক্তকরণে ভেনেজুয়েলা সরকারের বর্তমান কর্মকর্তাদের ওপর দৃষ্টি দেওয়া হয়েছে।