ভুটানে আরেকটি সাফল্যের সন্ধানে মারিয়ার দল

13

সংবাদ সম্মেলন শেষে মারিয়া-আঁখিদের জার্সি প্রদর্শন ৮ মাস আগের সাফল্যের কথা কখনও ভুলবে না মারিয়া-আঁখিরা। ঢাকায় মেয়েদের সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ ফুটবলের লড়াই। ২৪ ডিসেম্বর ফাইনালে শক্তিশালী ভারতকে হারিয়ে বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়ন। সেদিনের সাফল্যের সুখস্মৃতি নিয়ে এবার থিম্পুতে পা রাখছে স্বর্ণকন্যারা।
আগামী ৯ থেকে ১৮ আগস্ট ভুটানের রাজধানীতে বসবে সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ ফুটবলের দ্বিতীয় আসর। বাংলাদেশের মেয়েরা ভুটানের পথে রওনা হবে আজ। তার আগে শনিবার বাফুফে ভবনে সংবাদ সম্মেলনে সবার কণ্ঠে উচ্চারিত হলো শিরোপা ধরে রাখার প্রত্যয়।
কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন বললেন, ‘প্রথম আসরে মেয়েরা ভালো খেলে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল। শিরোপা জয়ের পর কিন্তু তারা অনুশীলন বন্ধ করেনি, বরং কঠোর অনুশীলন করেছে। আশা করি, আমরা শিরোপা ধরে রাখতে পারবো।’
অধিনায়ক মারিয়া মান্ডার কণ্ঠে কোচের কথারই প্রতিধ্বনি, ‘টুর্নামেন্টের প্রথম আসরে আমাদের লক্ষ্য ছিল শিরোপা। সেই লক্ষ্য পূরণ হয়েছিল। এবারও সাফল্যের জন্য দেশবাসীর দোয়া চাই। ভুটানেও চ্যাম্পিয়ন হতে চাই আমরা।’
ভুটানে পাঁচ জন নতুন খেলোয়াড় নিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। তারা হলো-ইলামনি, রিপা, রেহানা, রোজিনা ও নওশোন। ‘বি’ গ্রুপে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ পাকিস্তান ও নেপাল। ৯ আগস্ট পাকিস্তান এবং ১৩ আগস্ট নেপালের সঙ্গে লড়াই। ‘এ’ গ্রুপের তিন দল ভারত, ভুটান ও শ্রীলঙ্কা। ফাইনাল ১৮ আগস্ট। সব ম্যাচই হবে থিম্পুর চাংলিমিথান স্টেডিয়ামে।
বাংলাদেশ দল:
গোলকিপার: মাহমুদা আক্তার, রুপনা চাকমা, রুপা আক্তার।
ডিফেন্ডার: আাঁখি খাতুন, আনাই মগিনি, নাজমা, নিলুফার ইয়াসমিন নিলা, ঋতুপর্ণা চাকমা, শামসুন্নাহার।
মিডফিল্ডার: রেহানা আক্তার, মারিয়া মান্ডা, মনিকা চাকমা, তহুরা খাতুন, মুন্নী আক্তার, শামসুন্নাহার, সোহাগী কিসলু।
ফরোয়ার্ড: মোসাম্মত ইলামনি, শাহেদা আক্তার রিপা, আনুচিং মগিনি, লাবনী আক্তার, সাজেদা খাতুন, রোজিনা আক্তার, নওশোন।