ভাষা আন্দোলনের শহীদদের স্মরণে সেমিনার

100

 

গত ১৬ ফেব্রুয়ারী শনিবার তা’লীমুল কুরআন মাদরাসা কর্তৃপক্ষ ভাষা আন্দোলনের শহীদদের ত্যাগ ও তাদের অবদানকে স্মরণ করে তা’লীমুল কুরআন কমপ্লেক্স চট্টগ্রামের চেয়ারম্যান আলহাজ মাও. হাফেজ মুহাম্মদ তৈয়ব সাহেবের সভাপতিত্বে এক বিশেষ সেমিনারের আয়োজন করা হয়। সেমিনারে প্রধান অথিতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় শ্রমিক লীগের যুগ্ম সম্পাদক ও মহানগর আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা শফর আলী, প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র-১ চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী। এতে প্রধান অথিতি তার বক্তব্যে বলেন, বাংলা আমাদের মাতৃভাষা। এই মাতৃভাষার মর্যদা প্রতিষ্ঠার দাবিতে ১৯৫২ সালে রাজপথ রক্তে রঞ্জিত হয়েছিল। শহীদ হয়েছেন সালাম, বরকত, রফিক, জব্বার ও শফিউলসহ আরো অনেকে। তাদের সংগ্রাম ও আত্মত্যাগের ফলে ২১ ফেব্রুয়ারী আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে। জাতি হিসেবে আমারা মাথা উঁচু করে দাড়িয়েছি। প্রধান আলোচক মহান ভাষা আন্দোলনে সার নির্যাস তুলে ধরে ও আত্মোৎসর্গকারী ভাষা শহীদদের শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করে বলেন, একুশের পথ ধরেই স্বাধীকার আন্দোলন ও স্বাধীনতা সংগ্রাম পরিচালিত হয়েছে। অর্জিত হয়েছে মহান স্বাধীনতা। প্রমাণ করেছে যে, এই বাংঙ্গালী জাতি কোনো পরাশক্তির কাছে মাথা নত করে না। এতে বিশেষ অথিতি ছিলেন, চট্টগ্রাম মহানগর শ্রমিক লীগের সহ-সভাপতি আলহাজ কামাল উদ্দিন চৌধুরী, আরো উপস্থিত ছিলেন মুফতি নুর মুহাম্মদ, মাও. কারী ফজলুল করিম, হাফেজ মাও. নাজিম উদ্দিন, মাও. আজিজুল হক, মাও. নুরুল ইসলাম, হাফেজ আজিজুল হক, মাও. জমির উদ্দিন প্রমূখ। উপস্থিত বক্তারা আরো বলেন, ভাষা আন্দোলনের সেই শিক্ষা ও চেতনা বক্ষে ধারণ করে গণমানুষের অধিকার আদায়ের সংগ্রামে আমাদের আপোষহীন ভূমিকা পালন করতে হবে। পরে সভাপতি সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রেখে ভাষা আন্দোলনে আত্মোৎসর্গকারী সকল শহীদদের মাগফিরাত ও দেশ-জাতির কল্যাণ কামনা করে দোয়া ও মুনাজাত করেন। বিজ্ঞপ্তি