বিপিএলে সাকিবকে ছাপিয়ে নায়ক ফ্রাইলিঙ্ক

ভাইকিংসের রোমাঞ্চকর জয়

পূর্বদেশ স্পোর্টস ডেস্ক

24

বিপিএলের ২৪তম ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে থাকা সাকিব আল হাসানের ঢাকা ডায়নামাইটস এবং টেবিলের দুইয়ে থাকা মুশফিকুর রহিমের চিটাগং ভাইকিংস। হাইভোল্টেজ এই ম্যাচে দারুণ অলরাউন্ড পারফর্ম করেছেন ঢাকার দলপতি সাকিব। তবে, বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডারকে ছাপিয়ে গেছেন শেষ ওভারে ক্যামিও ইনিংস খেলা ভাইকিংসের রবি ফ্রাইলিঙ্ক। ৩ উইকেটে হেরেছে ঢাকা ডায়নামাইটস। টস জিতে আগে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় ঢাকা ডায়নামাইটস। ভাইকিংসের বিপক্ষে নির্ধারিত ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ডায়নামাইটসরা তোলে ১৩৯ রান। জবাবে, ১৯.৫ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে জয়ের বন্দরে পৌঁছে চিটাগং। ৭ ম্যাচ খেলে দ্বিতীয় হার ঢাকার, ৬ ম্যাচে পঞ্চম জয় চিটাগংয়ের। দুই দলেরই পয়েন্ট সমান, তবে নেট রানরেটে এগিয়ে ঢাকা।
মিরপুরে ব্যাটিংয়ে নেমে ঢাকার দলপতি সাকিব ৩৪ বলে দুটি চার, একটি ছক্কায় ৩৪ রান করে বিদায় নেন। উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান নুরুল হাসান সোহান ১৮ বলে পাঁচটি চারের সাহায্যে করেন ২৭ রান। শুভাগত হোম ইনিংসের শেষ বলে আউট হওয়ার আগে ১৫ বলে তিনটি চার আর একটি ছক্কায় করেন ২৯ রান।
ভাইকিংসের ক্যামেরুন দেলপোর্ট ৪ ওভারে ২৫ রান দিয়ে তুলে নেন তিনটি উইকেট। রবি ফ্রাইলিঙ্ক ৩ ওভারে ১৯ রানে দুটি, আবু জায়েদ রাহি ৪ ওভারে ২৭ রান দিয়ে দুটি উইকেট পান।
১৪০ রানের টার্গেটে চিটাগংয়ের আফগান ওপেনার মোহাম্মদ শাহজাদ ইনিংসের দ্বিতীয় বলেই বিদায় নেন। আরেক ওপেনার ক্যামেরুন দেলপোর্ট ১২ বলে চারটি চার আর দুটি ছক্কায় করেন ৩০ রান। তিন নম্বরে নামা ইয়াসির আলি ১৭ বলে এক ছক্কায় ১৫ রান করে সাজঘরে ফেরেন। দলকে টেনে নিয়ে চলেন দলপতি মুশফিকুর রহিম। ২৩ বলে ২২ রান করে ভাইকিংস অধিনায়ক বিদায় নেন। মাঝে ২ রানেই ফেরেন দাসুন শানাকা।
মোসাদ্দেক হোসেন একপ্রান্তে থাকলেও দ্রুত বিদায় নেন ব্যক্তিগত ৪ রান করা নাঈম হাসান। মোসাদ্দেক ৩৯ বলে তিনটি চারের সাহায্যে করেন ৩৩ রান। শেষ ওভারে ভাইকিংসের জয়ের জন্য দরকার হয় ১৬ রান। উইকেটে ছিলেন রবি ফ্রাইলিঙ্ক এবং সানজামুল ইসলাম। মোহর শেখের প্রথম বলে সিঙ্গেল নিয়ে ফ্রাইলিঙ্ককে স্ট্রাইক দেন সানজামুল। দ্বিতীয় বলে ছক্কা, তৃতীয় বলে ডাবল, চতুর্থ বলে ছক্কা আর পঞ্চম বলে ছক্কা হাঁকান ফ্রাইলিঙ্ক। ১ বল হাতে রেখেই জয় তুলে নেয় ভাইকিংসরা। ফ্রাইলিঙ্ক ১০ বলে তিনটি ছক্কায় ২৫ রান করে অপরাজিত থাকেন। সানজামুল ৩ বলে ২ রান করে অপরাজিত থাকেন। ঢাকার দলপতি সাকিব ৪ ওভারে মাত্র ১৬ রান দিয়ে তুলে নেন চারটি উইকেট।