বেজায় চটেছেন আনুশকা

4

ভারতীয় ক্রিকেট দলে বিশাল প্রভাব রয়েছে অধিনায়ক বিরাট কোহলির। কিন্তু তার পাশাপাশি স্ত্রী অভিনেত্রী আনুশকা শর্মারও সেখানে ব্যাপক কর্তৃত্ব রয়েছে বলে দাবি করেছেন সাবেক অধিনায়ক ফারুক ইঞ্জিনিয়ার। তবে তার এই দাবি অস্বীকার করার পাশাপাশি বেজায় চটেছেন বলিউড অভিনেত্রী আনুশকা।
‘টাইমস অফ ইন্ডিয়ায়’ দেয়া সাক্ষাৎকারে ফারুক ইঞ্জিনিয়ার ভারতীয় দলে বিরাট কোহলির কর্তৃত্ব বুঝাতে বলেন, আমাদের এখানে মিকি মাউস নির্বাচন কমিটি রয়েছে। বিরাট কোহলির ভয়ংকর প্রভাব ওদের ওপর। বিশ্বকাপের সময় একজন ব্যক্তিকে দেখলাম ভারতীয় ক্রিকেটের বেøজার গায়ে। আমি তার পরিচয় জানতে চাইলে তিনি নিজেকে ভারতীয় দলের নির্বাচক দাবি করেন। অথচ পুরো সময় তাকে দেখলাম আনুশকা শর্মাকে চায়ের কাপ এনে দিচ্ছেন।
এতেই বেজায় চটে গেছেন ৩১ বছর বয়সী এই বলিউড তারকা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এক খোলা চিঠিতে আনুশকা লিখেছেন, আজে-বাজে এবং মিথ্যা খবর প্রকাশ হলে আমি সবসময় চুপ থেকেছি। আর এভাবে করেই আমি আমার ক্যারিয়ারের ১১টি বছর পার করে দিয়েছি এবং সবসময় সত্য ও সততার সঙ্গে থেকেছি। কিন্তু চুপ করে থাকার অর্থ এই নয় যে, আমার নামে যে যা ইচ্ছে তাই বলে যাবেন। কোনো প্রমাণ ছাড়াই প্রত্যেকটা বিষয়ে আমাকে জড়ানো হয়েছে। আর বিশ্বকাপে আমি একটাই ম্যাচ দেখতে গিয়েছিলাম। সেখানে আমি ফ্যামিলি বক্সে বসেছিলাম। নির্বাচকদের বক্সে নয়।
ওই খোলাচিঠিতে আনুশকা বলেন, নির্বাচক নিয়ে নিজের মতামত দেওয়ার সময় আমার নাম জড়াবেন না। এটি আমি সহ্য করব না। আমি নিজের চেষ্টায় একজন অভিনেত্রী হয়েছি। সাফল্য পেয়েছি। তাই আমার নামে সবাইকে যা ইচ্ছে তাই বলতে দেব না। আর সবাইকে অনুরোধ, আমার বা আমার স্বামীর (বিরাট কোহলি) বা বোর্ডের সমালোচনা করার আগে দয়া করে যুক্তির সপক্ষে প্রমাণ দেখাবেন।
সাবেক অধিনায়কের এমন মন্তব্যে আনুশকা শর্মা আরও বলেন, আর উনার অবগতির জন্য জানাচ্ছি, আমি চা নই বরং কফি খেতে পছন্দ করি।