‘বুদ্ধের পদাঙ্ক অনুসরণ করুন’

14

ঐতিহ্যবাহী সদ্ধর্মপল্লী রাউজান গ্রামে মহানশ্মশানচারী পদব্রজচারী ধুতাঙ্গ সাধক ভদন্ত শরণংকর থের এর একক সদ্ধর্মদেশনা গত শুক্রবার দিনব্যাপী ধর্মীয় ভাবগাম্বীর্য পরিবেশে উপ সংঘরাজ ড. শীলানন্দ মহাস্থবিরে সভাপতিত্বে তরুণ বড়–য়া ও মিথুন বড়ুয়ার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত হয়। মঙ্গলাচরণ, উদ্বোধনী সংগীত, অতিথিবৃন্দদের পুষ্পস্তবক ও ক্রেষ্ট প্রদানের মাধ্যমে সদ্ধর্ম অনুষ্ঠান শুরু করা হয়। অনুষ্ঠানে উদ্বোধক ছিলেন সদ্ধর্মরত্ন ভদন্ত জ্ঞানানন্দ মহাথের। প্রধান অতিথি ছিলেন থাইওয়ান থেকে আগত ভদন্ত লেসকে দর্জি। বিশেষ অতিথি ছিলেন অতীশ দীপংকর মেমোরিয়াল কমপ্লেক্সের অধ্যক্ষ ভদন্ত করুণান্দ থের, মায়ানমার থেরবাদ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আগত ভদন্ত তিলোকা দীপংকর ভিক্ষু, ৭নং রাউজান ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান বিএম জসিম উদ্দিন হিরু, স্বাগত ভাষণ প্রদান করেন আয়োজক কমিটির আহবায়ক সাধন কান্তি বড়ুয়া, পঞ্চশীল প্রার্থনা করেন শচীভূষন বড়ুয়া, সদ্ধর্ম বক্তব্যে অংশগ্রহণ করেন মৃদুল বড়ুয়া মাদল, প্রকৌশলী তীর্থংকর বড়ুয়া, দোলন বড়ুয়া, শিক্ষক দীপন কান্তি বড়ুয়া, মিন্টু কুমার বড়ুয়া, সূর্য্যসেন বড়ুয়া শঙ্কু, ডাঃ হিমাদ্রী বড়ুয়া, সুমন কল্যাণ বড়ুয়া, ইউপি সদস্য প্রবেশ কুমার বড়ুয়া প্রমুখ। প্রধান সদ্ধর্ম দেশক ধুতাঙ্গ সাধক শরণংকর থের বলেন ২৫৬১ বছর আগে বুদ্ধের অমিয় বাণীগুলো প্রচারের জন্য সংঘের সৃষ্টি। কিন্তু নানান প্রতিকুলতায় এবং আধুনিক সমাজ ব্যবস্থার উদাসীনতায় ধীরে ধীরে, এসব বাণী বিলুপ্তির পথে। ১৭ জানুয়ারি রাত ৯টায় ৮ম ধুতাঙ্গবর্ষ পূরণ উদ্যাপন উপলক্ষ্যে কেক কাটা হয় এবং আতাশ বাজি ও আকাশ প্রদীপ প্রজ্বালন করা হয়। খবর বিজ্ঞপ্তির