বিষাক্ত কেমিক্যাল দিয়ে পাকানো হচ্ছে কলা!

হাটহাজারী প্রতিনিধি

32

বিভিন্ন বিষাক্ত কেমিক্যাল মিশিয়ে কৃত্রিম উপায়ে কলা পাকানো হচ্ছে। এমন তথ্যের ভিত্তিতে হাটহাজারী পৌরসভার কবুতর হাট এলাকায় কলার আড়তে অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় ফল পাকাতে ব্যবহৃত বিষাক্ত কেমিক্যালসহ এক কর্মচারীকে আটক করা হয়। গতকাল বিকাল সাড়ে ৫টায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ রুহুল আমীনের নেতৃত্বে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়।
অভিযানে কেমিক্যাল মেশানো প্রায় ২ মণ আম ও বেশ কিছু কলা ডাস্টবিনে ফেলে দেওয়া হয়। এসময় জড়িতরা বেশ কিছু কেমিক্যাল ওই কলার আড়তের ছাদে ও বাইরে ফেলে দেয়।
ইউএনও রুহুল আমীন জানান, রাইপেন-১৫ (জরঢ়বহ-১৫) নামে একটি কেমিক্যাল মেশানোর পর একদিনের মধ্যে কলা পেকে যায়। কোনাটার রঙ হয় হলুদ, কোনোটা আবার গাঢ় হলুদ।
শুধু কলা নয় মৌসুমি প্রায় সব ফলই এখন কেমিক্যাল মিশ্রিত। বাজার করতে আসা পৌরসভা এলাকার মো. আবুল কালাম জানান, কলার আড়তসহ বিভিন্ন ফলের দোকানে অনেক অসাধু ব্যবসায়ীরা কেমিক্যাল ব্যবহার করে চলেছেন। এসব আড়তে ও দোকানে কোন কোন ব্যবসায়ী ফল পাকাতে আবার কেউ কেউ পাকা ফলে রঙ আনতে এ ধরণের কেমিক্যাল ব্যবহার করছে।
চিকিৎসকদের মতে ফল পাকাতে ও রঙ আনতে ব্যবহৃত বিষাক্ত এই কেমিক্যাল পর্যায়ক্রমে শরীরের কিনডি ও লিভারসহ বিভিন্নভাবে ক্ষতিসাধন করে। খাদ্য অধিদপ্তর কিংবা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এসব অসাধু ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা না নেওয়ায় তারা বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। কলার আড়ত মালিকরা বিষাক্ত কেমিক্যাল ব্যবহার করে কাঁচা কলাকে দ্রুত পাকিয়ে বাজারে সরবরাহ করছে। আর এই কেমিক্যাল ব্যবহারের ফলে কলার প্রকৃত স্বাদ ও উপকারের পরিবর্তে স্বাস্থ্য ঝুঁকি ব্যাপক হারে বাড়ছে।