বাঁশখালীতে আন্তর্জাতিক ক্বেরাত সম্মেলন

বিশ্ববিখ্যাত ক্বারীদের সুমধুর তেলাওয়াত শুনতে মানুষের ঢল

নিজস্ব প্রতিবেদক

63

বাঁশখালীর মাস্টার নজির আহমদ বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ মাঠে আয়োজিত আন্তর্জাতিক ক্বেরাত সম্মেলন ও ৬ষ্ঠ বার্ষিক মাহফিল সৃশঙ্খলভাবে সম্পন্ন হয়েছে। এতে দেশি-বিদেশি বিশ্ববিখ্যাত ক্বারীগণ সুমধুর কণ্ঠে মহাগ্রন্থ আল কোরআন তেলাওয়াত করেন। তাদের তেলাওয়াত শুনতে হাজার হাজার মানুষের ঢল নামে মাস্টার নজির আহমদ বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ মাঠ ও এর আশপাশের এলাকায়। কলেজ মাঠ ছাড়াও তিনটি প্রজেক্টরের মাধ্যমে তেলাওয়াত সম্প্রচার করা হয়। মহিলাদের জন্য পর্দা সহকারে আলাদা বসার জায়গা।
মাস্টার নজির আহমদ ট্রাস্ট পরিচালিত ও আম্বিয়া খাতুন মহিলা ক্যাডেট মাদ্রাসার উদ্যোগে আয়োজিত এ আন্তর্জাতিক ক্বেরাত সম্মেলন ও বার্ষিক মাহফিলে সভাপতিত্ব করেন পীরে কামেল আলহাজ হযরত মাওলানা ইসহাক। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন মাস্টার নজির আহমদ ট্রাস্টের সদস্য সচিব ও দৈনিক পূর্বদেশ সম্পাদক আলহাজ মুজিবুর রহমান সিআইপি। আলোচক ছিলেন হাটহাজারী আরবি বিশ্ববিদ্যালয়ের মুহাদ্দিস মাওলানা আনোয়ার শাহ আল আযহারি ও মাওলানা জুনাইদ আল হাবিব।
বাদ এশা শুরু হওয়া ক্বেরাত সম্মেলনে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন মিশরের শায়খ ক্বারী ইয়াহইয়া শারকাভী ও ওসামা আল হাওয়ারী, কানাডার ক্বারী মোজাম্মেল হোসাইন, তানজানিয়ার ক্বারী রেজা আইয়ুব, লন্ডনের ক্বারী আইয়ুব আসিফ, ইন্দোনেশিয়ার ক্বারী সালমান আমিরুল্লাহ ও ভারতের ক্বারী তৈয়ব জামান।মাহফিলের শুরুতে প্রধান অতিথি আলহাজ মুজিবুর রহমান সিআইপি বলেন, শিক্ষা-দীক্ষায় পিছিয়ে থাকা বাঁশখালী, বিশেষ করে দক্ষিণ বাঁশখালীকে এগিয়ে নিতে আমার পরিবার সর্বদা বদ্ধপরিকর। সে লক্ষ্যে ২০০৭ সালে আমার শ্রদ্ধেয় বাবা কলেজ প্রতিষ্ঠা করেন এবং বর্তমানে এ কলেজ চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডের অন্যতম সেরা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। তিনি বলেন, দক্ষিণ বাঁশখালীর নারী শিক্ষার উন্নয়নে ২০১১ সালে আমার মায়ের নামে ‘আম্বিয়া খাতুন মহিলা ক্যাডেট মাদ্রাসা’ প্রতিষ্ঠা করা হয়। প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে এ প্রতিষ্ঠানের পাশের হার শতভাগ, আলহামদুলিল্লাহ। আমার বাবার ইন্তেকালের পর আমার পরিবার ‘মাস্টার নজির আহমদ ট্রাস্ট’ প্রতিষ্ঠা করে। আল্লাহর রহমতে ও আপনাদের দোয়ায় এ ট্রাস্টের মাধ্যমে প্রিয় বাঁশখালীর অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের পাশাপাশি এলাকার গরীব এবং মেধাবীদের লেখাপড়ায় সহযোগিতা করে যাচ্ছি।
আন্তর্জাতিক ক্বেরাত সম্মেলনে উপস্থিত সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, আপনাদের আগমনে ক্বেরাত সম্মেলন বিশেষ মর্যাদা পেয়েছে। আপনারা দোয়া করবেন, যাতে আমার বাবার অসম্পূর্ণ কাজ এ ট্রাস্টের মাধ্যমে আমরা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে পারি।
জিয়া উদ্দীনের সঞ্চালনায় মাহফিল শেষে মোনাজাত পরিচালনা করেন ফটিকছড়ি নানুপুর ওবাইদিয়া মাদ্রাসার শায়খুল হাদিস মাওলানা কুতুব উদ্দিন।
উল্লেখ্য, সকাল থেকে শুরু হওয়া কর্মসূচিতে বাঁশখালীর বিভিন্ন মাদ্রাসার শিক্ষার্থীর অংশগ্রহণে ইসলামী সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানেরও আয়োজন করা হয়।