বিশ্বকাপ মিশনে মাশরাফী

9

ত্রিদেশীয় সিরিজ জয়ের উৎসব থামার আগেই ডাবলিন থেকে দেশের পথে রওনা হন মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা। শনিবার গভীর রাতে ঢাকায় পৌঁছান বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক। তিন দিন পরিবারের সঙ্গে কাটিয়ে বুধবার সকাল সাড়ে ১০টায় ধরলেন লন্ডনের বিমান। শুরু হয়ে গেল দেশের সফল অধিনায়কের বিশ্বকাপ অভিযান।
দেশ ছাড়ার আগে বিমানবন্দরে মাশরাফী বলেন, ‘সবাই দোয়া করবেন, আমরা চেষ্টা করবো ভালো করার। সবাই দোয়া করবেন, বাংলাদেশ দল যেন ভালো খেলে।’
ত্রিদেশীয় সিরিজ জয় দলকে আত্মবিশ্বাসী করলেও বিশ্বকাপ আসরে ভালো শুরু করাটা জরুরী বলে মনে করেন অধিনায়ক, ‘সবার আত্মবিশ্বাস অনেক ভালো আছে। তবে টুর্নামেন্ট তো ভিন্ন। শুরুটা অনেক গুরুত্বপূর্ণ। ভালো শুরু করতে পারলে আশা করি ভালো কিছুই হবে।’
বাংলাদেশ দল লেস্টারে থাকলেও মাশরাফী সরাসরি লন্ডন যাচ্ছেন অধিনায়কদের সংবাদ সম্মেলনে যোগ দিতে। বৃহস্পতিবার লন্ডনের দ্য ফিল্ম শেডে ১০ দলের অধিনায়ক বিশ্বমিডিয়ার মুখোমুখি হবেন।
বৃহস্পতিবার লেস্টার ছেড়ে বাংলাদেশ দলের ঠিকানা হবে কার্ডিফ। একইদিন থেকেই বাংলাদেশ থাকবে আইসিসির প্রটোকলে, পুরো দল নেবে বিশ্বকাপ আয়োজক দেশের আতিথেয়তা। ত্রিদেশীয় সিরিজ শেষ করে দুবাই বেড়াতে যাওয়া তামিম ইকবাল কার্ডিফে দলের সঙ্গে যোগ দেবেন বৃহস্পতিবার।
আগামী ২৬ ও ২৮ মে কার্ডিফে ভারত ও পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। ২৯ মে কার্ডিফ থেকে লন্ডনে ফিরবে দল। ২ জুন ওভালে বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে ওভালে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ সাউথ আফ্রিকা। একে একে অংশগ্রহণকারী সব দেশের সঙ্গেই খেলবে মাশরাফীর দল।
গত বিশ্বকাপে কোয়ার্টার ফাইনাল খেলা বাংলাদেশ এবার চায় আরেকধাপ এগিয়ে সেমিফাইনালে লড়তে। যে লক্ষ্যের সঙ্গে একাত্ম কোচ, অধিনায়ক থেকে শুরু করে দলের সবাই।