বিশ্বকাপ দল বিশ্লেষণ এবারও সুযোগ রয়েছে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নদের!

50

দরজায় কড়া নাড়ছে রাশিয়া বিশ্বকাপ। আগামী ১৪ জুন থেকে ১৫ জুলাই পর্যন্ত রাশিয়ার ১২টি ভেন্যুতে অনুষ্ঠিত হবে ফিফা বিশ্বকাপের ২১তম আসর। এবার ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন হিসাবে বিশ্বকাপে অংশ নিবে জার্মানি। তাছাড়া ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে সেরা অবস্থানে থেকে তারা এই বিশ্বকাপে অংশ নিবে।
২০১৪ সালে ব্রাজিলে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে স্বাগতিক ব্রাজিলকে ৭-১ গোলে হারানোর পর ফাইনালে আর্জেন্টিনাকে ১-০ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় জোয়াকিম লোর জার্মানি। ফুটবল বিশ্লেষকদের অনেকেই মনে করছেন, রাশিয়া বিশ্বকাপে ফেভারিট জার্মানি। তাদের বিশাল সম্ভানা রয়েছে। সম্ভাবনা আছে ব্রাজিল, আর্জেন্টিনা, ফ্রান্স, স্পেনের মতো দলগুলোরও।
যেভাবে বিশ্বকাপে উঠে এলো জার্মানি: বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে দশটি ম্যাচ খেলে দশটিতেই জয় পেয়ে বিশ্বকাপে জায়গা করে নেয় জার্মানি। ফুটবল ইতিহাসে দ্বিতীয় দল হিসাবে বাছাইপর্বে শতভাগ জয় নিয়ে বিশ্বকাপে জায়গা করে নেয় জোয়াকিম লোর দল। এর আগে ২০১০ সালে স্পেন শতভাগ জয় নিয়ে বিশ্বকাপে জায়গা নিশ্চিত করেছিল। সেবার চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল স্পেন।
গ্রæপ পর্বে জার্মানির প্রতিপক্ষ: মেক্সিকো, সুইডেন ও দক্ষিণ কোরিয়া।
হেড কোচ: জোয়াকিম লো
ফিফা র‌্যাঙ্কিং: ১
বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ: দলটি এখন পর্যন্ত ১৮ বার ফিফা বিশ্বকাপে অংশ নিয়েছে। এবার তারা ১৯তম বারের মতো বিশ্বকাপে অংশ নিতে যাচ্ছে।
শিরোপা জয়: জার্মানি এখন পর্যন্ত চারবার বিশ্বকাপ জিতেছে। ১৯৫৪, ১৯৭৪, ১৯৯০ ও ২০১৪ সালের আসরে চ্যাম্পিয়ন হয় তারা।
আলোচিত তারকা: জার্মানি দলে বেশ কয়েকজন তারকা খেলোয়াড় রয়েছেন। এদের মধ্যে অন্যমত হচ্ছেন ম্যানুয়েল নয়ার, টনি ক্রুস, মেসুত ওজিল, টমাস মুলার ও লিরয় সেন।
জার্মানির ২৭ সদস্যের প্রাথমিক স্কোয়াড: ম্যানুয়েল নয়ার, বার্নড লেনো, মার্ক-আন্দ্রে টের স্টেগেন, কেভিন ট্রাপ, জেরোমি বোয়াটেং, মাত্তিয়াস গিন্টার, জোনাস হেক্টর, ম্যাটস হামেলস, জশুয়া কিমিচ, মারভিন প্লাত্তেনহার্ডট, অ্যান্তোনিও রুডিগার, নিকলাস সুলে, জনাথন তাহ, জুলিয়ান ব্রান্ডট, জুলিয়ান ড্রাক্সলার, মারিও গোমেজ, লিওন গোরেৎজকা, ইলকে গুনডোগান, সামি খেদিরা, টনি ক্রস, থমাস মুলার, মেসুত ওজিল, নিলস পিটারসেন, মার্কো রিউস, সেবাস্তিয়ান রুডি, লিরয় সেন, টিমো ওয়ের্নার।
প্রেডিকশন: ১৯৮২ সাল থেকে এই পর্যন্ত যতগুলো বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হয়েছে তার মধ্যে প্রতিটি আসরেই জার্মানি কমপক্ষে কোয়ার্টার ফাইনাল খেলেছে। ১৯৯০ সালে তারা চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল। ২০০২ সালে রানার আপ হয়েছিল দলটি। ২০০৬ সালে ও ২০১০ সালে তৃতীয় স্থান অর্জন করেছিল। আর ২০১৪ সালে তারা চ্যাম্পিয়ন হয়। এবারও জার্মানি ফাইনাল খেলবে বলে আশা করা হচ্ছে।

জার্মানির অনুশীলন
শিবিরে মারামারি

হটফেভারিট তারা। বিশ্বকাপ জিততে দরকার দলীয় একতা। কিন্তু বিশ্বকাপের আগে অনুশীলনের সময় বিবাদ এবং হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়লেন ফুটবলাররা!
অনুশীলনে হঠাৎই একটা ট্যাকল থেকে গন্ডগোলের সূত্রপাত। একে অপরের দিকে তেড়ে যাওয়া। হাতাহাতি থেকে মারপিট। বিশ্বকাপের আগে ঝামেলায় হঠাৎই ছন্দপতন জার্মান শিবিরে। পুরোটাই হয় কোচ জোয়াকিম লোর সামনে।
তবে বাজে খবরের মধ্যেও এদিন ভাল খবর হল, আট মাস মাঠের বাইরে থাকার পর এই প্রথম ম্যানুয়েল ন্যুয়ের কোনও ম্যাচ খেললেন। জার্মানির সিনিয়র দলের বিরুদ্ধে অনূর্ধ্ব-২০ দলের অনুশীলন ম্যাচ খেলা হয়। ৩৫ মিনিট করে মোট ৭০ মিনিটই খেলেছেন।