বান্দরবানে বেড়াতে গিয়ে জরিমানা দিলেন ৯ জন

বান্দরবান প্রতিনিধি

14

চলমান করোনা ভাইরাস প্রাদুর্ভাবের মধ্যেই ভ্রমণে বের হয়ে জরিমানা গুনলেন ৯ পর্যটক। গতকাল বুধবার বিকেলে পার্বত্য জেলা বান্দরবানে ভ্রমণে যাওয়া পর্যটকবাহী দু’টি গাড়ির ৯ পর্যটককে জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। জেলা শহরের প্রবেশপথ হলুদিয়া এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালতে তাদের জরিমানা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কায়েসুর রহমান। এসময় অতিরিক্ত যাত্রী নেয়ায় দু’টি বাসকেও জরিমানা করা হয়।
জানা গেছে, গতকাল বুধবার বিকেলে বান্দরবান সদরের হলুদিয়া এলাকায় কেরাণীহাট থেকে প্রাইভেট গাড়িতে করে ভ্রমণের উদ্দেশ্যে বান্দরবান যাচ্ছিলেন ৪ যাত্রী। এসময় তাদের গতি রোধ করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। পরে বিস্তারিত তথ্য যাচাই-বাছাই শেষে গাড়িতে থাকা ৪ পর্যটককে সংক্রমণ রোগ প্রতিরোধ নিয়ন্ত্রণ নির্মূল আইনে তাদের ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। অন্যদিকে একই দিন বান্দরবান ভ্রমণ শেষে ফেরার পথে একই আদালতের সামনে পড়েন আরো ৫ পর্যটক। তাদের তথ্য-যাচাই-বাছাই শেষে জানা যায় তারা ভ্রমণে গেছেন। করোনা পরিস্থিতিতে অযথা ভ্রমণসহ বিভিন্ন বিধি-নিষেধের মধ্যেই তারা ভ্রমণ করায় ভ্রাম্যমাণ আদালত তাদের ৫ হাজার টাকা জরিমানা করে। আদালত পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কায়েসুর রহমান। এসময় অতিরিক্ত যাত্রী নেয়ায় বান্দরবান-কেরাণীহাটমুখী একটি বাসকেও ২ হাজার টাকা এবং বান্দরবান-চট্টগ্রামের একটি বাসকে ২ হাজার টাকা করে মোট ৪ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।
নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কায়েসুর রহমান জানান, সরকার চলাচলের উপর কঠোর নিয়ন্ত্রণ আরোপ করেছে। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কেউ যাতে চলাচল না করেন সে বিষয়ে বলা হয়েছে। চলাচলের সময় সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখার ব্যাপারেও বলা হয়েছে। কোনো উদ্দেশ্য ছাড়া গাড়ি নিয়ে বান্দরবানে বেড়াতে আসায়, শারিরীক দুরত্ব বজায় না রাখায় এবং মাস্ক না থাকায় আইন অনুযায়ী দু’টি গাড়ির ৯ যাত্রীকে ৫ হাজার টাকা করে মোট ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এছাড়াও সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে অতিরিক্ত যাত্রী নিয়ে সংক্রমণ ঝুঁকি বাড়ানোয় দু’টি বাসকে ২ হাজার টাকা করে মোট ৪ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।