প্রকল্প উদ্বোধনকালে বীর বাহাদুর

বান্দরবানে দুর্গম পাহাড়ে পানির সঙ্কট থাকবে না

বান্দরবান প্রতিনিধি

14

বান্দরবানে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের বাস্তবায়নে চলিত ও গত অর্থ বছরে সম্পাদিত ৭টি প্রকল্পের জিএফএস এর মাধ্যমে পানি সরবরাহ ব্যবস্থার উদ্বোধন করা হয়েছে। বান্দরবানের প্রত্যন্ত অঞ্চলের প্রায় সাড়ে পাঁচ হাজার মানুষের পানীয় জলের সঙ্কট নিরসনে ৭টি প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর। এসব প্রকল্প বাস্তবায়নে ব্যয় হবে প্রায় ২কোটি টাকা। স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে বান্দরবানের সুয়ালক, টংকাবতী, কুহালং ও সদর ইউনিয়নে জিএফএস প্রযুক্তির এই প্রকল্পগুলো বাস্তবায়ন হচ্ছে। সোমবার সকালে বান্দরবানের সুয়ালক ইউনিয়নের মাঝের পাড়ায় পার্বত্যমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এসব প্রকল্পের উদ্বোধন করেন। এসময় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. শামীম হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. আসাদুর জামান, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হাবিবুল হাসান, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান একেএম জাহাঙ্গীর, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান য়ইসা প্রæ মারমা, পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য মোজাম্মেল হক বাহাদুর, সদস্য লক্ষীপদ দাশ, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী সোহরাব হোসেন, উপ সহকারি প্রকৌশলী খোরশেদ আলম, সদর উপজেলার জনস্বাস্থ্য বিভাগের উপ সহকারী প্রকৌশলী মো. মনজেল হোসেন, সুয়ালক ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান উক্যনু মারমা, সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাচ প্রূ মারমা সাবুসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।
এদিকে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে পার্বত্যমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি বলেন, বান্দরবানের দুর্গম পাহাড়ের সাড়ে পাঁচ হাজার মানুষের পানীয় জল সংকট নিরসন হবে সাতটি প্রকল্পের মাধ্যমে। পার্বত্য চট্টগ্রামে জিএফএস’র প্রকল্পের মাধ্যমে দুর্গম অঞ্চলের পাহাড়ের শত শত বছরের কষ্ট অনেকাংশে লাঘব করে দিয়েছে। পাহাড়ি জনপদের মানুষজনকে এখন আর পাহাড়ের পর পাহাড় পায়ে হেঁটে গভীর খাদে গিয়ে ঝিড়ি, ঝর্ণা, ছড়া ও খাল থেকে দূষিত পানি সংগ্রহ করতে হয় না। এখন তারা পাড়ার মধ্যে বাড়ির পাশে বিশুদ্ধ পানি পাচ্ছেন। এতে দুর্গম পাহাড়ের মানুষ মহাখুশি। মন্ত্রী আরোও বলেন, পাহাড়ি দুর্গম প্রতিটি পাড়ায় জিএফএস পানি সরবরাহ প্রকল্প বাস্তবায়িত হলে কমে যাবে বিশুদ্ধ পানির সংকট এবং পাল্টে যাবে পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর জীবনচিত্রের মান।