ফার্নিচার মেলা

বাজার সৃষ্টিতে এ শিল্পে বৈচিত্র্য দরকার : মেয়র

24

নগরের জিইসি কনভেনশন সেন্টারে শুরু হয়েছে পাঁচ দিনব্যাপী ফার্নিচার মেলা। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বেলুন উড়িয়ে মেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। এ উপলক্ষে আয়োজিত সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন ফার্নিচার শিল্প মালিক সমিতি চট্টগ্রামের সভাপতি সৈয়দ এ এস এম নুর উদ্দিন। কাস্টমস এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেট, চট্টগ্রামের কমিশনার মোহাম্মদ এনামুল হক, ফার্নিচার শিল্প মালিক সমিতির মহাসচিব মোহাম্মদ ইলিয়াস, সাংগঠনিক সম্পাদক করিম মজুমদার, মেলা কমিটির আহবায়ক মাকসুদুর রহমান ও আল মাহমুদ ইকবাল প্রমুখ এতে বক্তব্য রাখেন। এসময় জিইসি কনভেনশন হল নির্বাহী পরিচালক মো শামীম উদ্দিন, ভাইস প্রেসিডেন্ট সদরুদ্দিন, ওমর ফারুক, সাইফুদ্দিন চৌধুরী, ইফতেখার উদ্দিন, এম নাসের প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
এতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সিটি মেয়র বলেন, দেশের অত্যন্ত সম্ভাবনাময় খাত হচ্ছে ফার্নিচার শিল্প। এ খাতটি অত্যন্ত শ্রমঘন। এছাড়া ফার্নিচার খাতটিতে সব ধরনের জনগোষ্ঠীর অংশগ্রহণের সুযোগ রয়েছে। আর বর্তমানে ইন্টেরিয়র ও হোমফার্নিচারের চাহিদা বাড়ছে এবং সেগুলো খুব মানসম্মত। তিনি বলেন, আধুনিক যুগের সাথে পাল্লা দিয়ে নিজস্ব ডিজাইন ও শৈল্পিক রূপ দিয়ে দেশের মানুষের চাহিদা পূরণে কাজ করে যাচ্ছে এই শিল্প। কাঠশিল্প যুগের সাথে তাল মিলিয়ে নিজস্বতার আবরণে দেশীয় রূপে সাজাচ্ছে গৃহ ও অফিস। তাই নতুন নতুন ডিজাইন যাতে ক্রেতা সাধারণকে আকৃষ্ট করে সেই ব্যাপারে ফার্নিচার শিল্প মালিকগণকে সচেষ্ট থাকতে হবে। এ প্রসঙ্গে মেয়র বলেন, আবাসিক ও বাণিজ্যিক খাতে ফার্নিচারের নতুন বাজার সৃষ্টির জন্য বৈচিত্র্যে পরিবর্তন দরকার। তাই মার্জিত ও কমফোর্টের দিকে খেয়াল রেখে ফার্নিচার তৈরি করতে হবে। তিনি বলেন, ফার্নিচার শিল্পসহ বিভিন্ন শিল্প এর প্রদর্শনী করার মতো জায়গা এই শহরে নেই বললে চলে। এসব শিল্প প্রতিষ্ঠানসমূহ কয়েক মাস পর পর প্রদর্শনী করার সুযোগদানে চসিক পরিকল্পনার কথা উল্লেখ করে সিটি মেয়র বলেন, আগ্রাবাদ এলাকায় চসিকের ৩০ হাজার বর্গফুট জায়গার উপর একটি বহুতল ভবন নির্মাণাধীন আছে। এই ভবন থেকে ২টি ফ্লোর প্রর্দশনীর জন্য বরাদ্দ রাখা হবে বলে উল্লেখ করেন মেয়র। এই ফ্লোরে যে কোনো শিল্প প্রতিষ্ঠান মেলার আয়োজন করতে পাববে। মেলা ১৭ ডিসেম্ব^র পর্যন্ত চলবে। সারাদেশ থেকে মেলায় ৩১টি প্রতিষ্ঠান অংশ নিয়েছে। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত মেলা খোলা থাকবে। খবর বিজ্ঞপ্তির