শারদীয় দুর্গাপূজার আলোচনা সভায় বক্তারা

বাংলাদেশে অসাম্প্রদায়িক অপশক্তির কোন স্থান নেই

পূর্বদেশ ডেস্ক

1

মহানগর পূজা উদ্যাপন পরিষদ : তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, সকল সম্প্রদায়ের রক্তস্রোতের বিনিময়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা লাল-সবুজের পতাকার জন্ম দিয়েছিল। বর্তমানে হিন্দু-মুসলিম-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান সকল সম্প্রদায় ধর্মনিরপেক্ষতার মাধ্যমে বর্তমানে দেশে ৮.১৬ শতাংশ অর্থনীতি প্রবৃদ্ধি হয়েছে। বাঙালি জাতির পরিচয় ধর্মভিত্তিক নয়, শুধুই বাঙালি। এদেশে কোন অসাম্প্রদায়িক ও অপশক্তির কোন স্থান নেই। এদেশ ও এই মাটি সকলের। আমরা সবাই বাঙালি। এটাই আমাদের বড় পরিচয়। তিনি গত ৫ অক্টোবর পূজা উদযাপন পরিষদ মহানগরীর উদ্যোগে নগরীর প্রধান পূজামন্ডপ জেএম সেন হলে শারদীয়া দুর্গোৎসবের মহাসপ্তমীর আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। পরিষদের সভাপতি এড. চন্দন তালুকদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উদ্বোধক ছিলেন চট্টগ্রামস্থ ভারতীয় সহকারি হাই কমিশনার অনিন্দ্য ব্যানার্জী। প্রধান আলোচক ছিলেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গীত বিভাগের সভাপতি প্রফেসর সুকান্ত ভট্টাচার্য্য। বিশেষ অতিথি ছিলেন চসিক প্যানেল মেয়র চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী, হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের ট্রাস্টী রাখাল দাশগুপ্ত, জন্মাষ্টমী পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক বিমল কান্তি দে, চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট মোহাম্মদ আইয়ুব খান, পিডিবি’র (চট্টগ্রাম দক্ষিণাঞ্চল) প্রধান প্রকৌশলী প্রবীর কুমার সেন, পরিষদের প্রাক্তন সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা অরবিন্দ পাল অরুন, সহ-সভাপতি লায়ন দিলীপ ঘোষ ও চট্টগ্রাম উত্তর জেলা পূজা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক এড. নিখিল কুমার নাথ। এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক প্রকাশ দাশ অসিত। পরিষদের যুগ্ম সম্পাদক মিথুন মল্লিক ও সহ-অর্থ সম্পাদক বিপ্লব সেনের সঞ্চালনায় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন পরিষদের সহ-সভাপতি লায়ন দুলাল চন্দ্র দে, সাবেক সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক অর্পন কান্তি ব্যানার্জী, রানা বিশ্বাস, রত্নাকর দাশ টুনু, যুগ্ম সম্পাদক হিল্লোল সেন উজ্জ্বল, সাংগঠনিক সম্পদক সজল দত্ত, প্রদীপ শীল, দোলন দেব, এড. টিপু শীল জয়দেব, সুকান্ত মহাজন টুটুল, শ্যামল মজুমদার, অরুন রশ্মি দত্ত, প্রিয়তোষ ঘোষ রতন, বিশ্বজিত রায়, রাজীব চৌধুরী মিল্টন, সঞ্জয়িতা দত্ত পিংকি, প্রসেনজিৎ সরকার, পিন্টু দত্ত তমাল, তাপস দে, এড. রক্তিম বিশ্বাস, রাহুল দাশ, অমিত ঘোষ, রাজন দাশ, অসিত দত্ত, বিবেক দেব, দীপ্ত সিংহ, রিপন রায় চৌধুরী, সুষ্ময় সিনহা, অসিত বরণ বিশ্বাস, কুশন সেন, অয়ন ধর প্রমুখ। রাতে মনোজ্ঞ সঙ্গীতানুষ্ঠানে সঙ্গীত পরিবেশন করেন বেতার ও টিভি শিল্পী রাজীব মজুমদার, ফাল্গুনী মজুমদার, সামিনা ছাফা চৌধুরী।
বাগমনিরাম ওয়ার্ড রবি দাশ কলোনী : সার্বজনীনন দূর্গা উৎসবে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখতে গিয়ে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেম বক্কর বলেছেন, আমাদের দেশে জাতীয়ভাবে এ উৎসবকে সার্বজনীন দুর্গাপূজা বা দূর্গা উৎসব হিসেবে অভিহিত করা হয়। আজকে আপনাদের সামনে এসেছি, আমাদের দলের কারাবন্দি খালেদা জিয়া ও দলের ভারপ্রাপ্ত তারেক রহমানের দলের পক্ষ থেকে শারদীয় শুভেচ্ছা জানানোর জন্যে। আপনারা জানেন, খালেদা জিয়া অবৈধ সরকারের কারাগারে বন্দি আছে। দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান আমাদের বলেছেন, তোমরা যে পূজামন্ডপে যখন যাবে আমার শুভেচ্ছা তাদের কাছে পৌঁছে দিও। আমি সে শুভেচ্ছা বাণী পৌঁছে দিতে এসেছি। তিনি দুর্গা উৎসবের মহা সপ্তমীতে বাগমনিরাম ওয়ার্ডে রবি দাশ কলোনীতে শ্রী শিব মন্দির পূজামন্ডপে দরিদ্র মহিলাদের মাঝে বস্ত্র বিতরণ ও জামাল খান ওয়ার্ডের হেমসেন লেইন পূজা মন্ডপ পরিদর্শনকালে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখতে গিয়ে এসব কথা বলেন। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির নজির তুলে আবলু হাশেম বক্কর বলেন, দুর্গাপূজার সময়ে অপূর্ব মিলন মেলা ঘটে থাকে। বিএনপি এ দেশের হিন্দু সম্প্রদায়ের স্বার্থ রক্ষায় কাজ করে। ঢাকেশ্বরী মন্দিরের জমি দখলমুক্ত করতে খালেদা জিয়া ও ঢাকার সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকার অনেক অবদান রয়েছে। আমরা এটুকু আশ্বাস দিতে পারি যে, আমরা হিন্দু সম্প্রদায়ের পাশে আছি, সব সময় থাকব এবং আপনাদের ন্যায়সঙ্গত অধিকারকে প্রতিষ্ঠা করার জন্য বিএনপি আছে। তিনি বলেন, দেবীর তর্জনীতে ধরা সুদর্শন চক্র তার শুভতার লালন ও অশুভের বিনাশের ইচ্ছার প্রকাশ। এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মহানগর বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক ইয়াসিন চৌধুরী লিটন, শিল্প বিষয়ক সম্পাদক শহিদুল ইসলাম শহীদ, কোতোয়ালী থানা বিএনপি সভাপতি মঞ্জুর রহমান চৌধুরী, নগর বিএনপির সহ প্রশিক্ষণ সম্পাদক শফিক আহমেদ, সহ-শ্রম সম্পাদক আবু মুসা, সহ-প্রকাশনা সম্পাদক আবদুল হাই, সহ-গ্রাম সম্পাদক সালাহ উদ্দিন লাতু, চকবাজার থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক নূর হোসেন, যুগ্ম সম্পাদক বেলায়েত হোসেন, বাগমনিরাম বিএনপির সভাপতি রাসেল পারভেজ সুজন, সাধারণ সম্পাদক আবু ফয়েজ, এনায়েত বাজার বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জাহিদ উল্লাহ রাশেদ, আনোয়ার হোসেন আনু, আবু মো. মহসিন চৌধুরী, কাজী শাহজাহান, মো. সেকান্দর, মো. নাসির, মো. জামাল বাচ্চু, জাবেদ হোসেন, ফজল আলী, আবুল হোসেন শ্রী শিব মন্দির পূজামন্ডপ কমিটির সভাপতি মনু লাল দাশ, সহসভাপতি মিলন দাশ, টিটু দাশ, সাধারণ সম্পাদক তুফান দাশ, জামাল খান ওয়ার্ডের হেমসেন লেইন পূজামন্ডপ কমিটির সভাপতি সুনীল ধর, সাধারণ সম্পাদক যিশু বণিক প্রমুখ।
৯নং উত্তর পাহাড়তলী ওয়ার্ড আ.লীগ : ৯নং উত্তর পাহাড়তলী ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের উদ্দ্যোগে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি সংসদের সভাপতি মো. আহছান উল্লাহ্ সভাপতিত্বে গত ৬ অক্টোবর নিউ শহীদ লেইন মাওয়া টাওয়ার চট্টবীর প্রয়াত আলহাজ এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী স্মৃতি সংসদের আয়োজনে শারদীয় দূর্গোৎসব উপলক্ষ্যে শারদ শুভেচ্ছা স্বরুপ নগদ অর্থ ও বস্ত্র বিতরণ করেন। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে ছিলেন ৯নং উত্তর পাহাড়তলী ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের আহব্বায়ক ও সাবেক কাউন্সিলর এসএম আলমগীর। প্রধান বক্তা ছিলেন ৯নং উত্তর পাহাড়তলী ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহব্বায়ক আলহাজ এরশাদ মামুন। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন আকবরশাহ্ থানা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি নিয়াজ আহম্মেদ, পাহাড়তলী থানা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোজাফ্ফর আহমেদ মাসুম, আলহাজ মো. নজরুল ইসলাম, আলহাজ কুতুব উদ্দিন ও মো. আনোয়ার হোসেন। এতে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন শফিকুল ইসলাম মানিক, রতন সরকার, রাখাল দে, মিলন দাশ, প্রিয় বাবু, নুর ইসলাম, মো. বাদশা মিয়া, মো. হানিফ খোকা, মো. হাশেম, আনোয়ার হোসেন, নুরুল আফছার, ইমরান আলী রাজু, জিয়া উদ্দিন বাবলু, জাহীদুল ইসলাম সুমন, মো. আরমান আলী রিমন, হাসান মাহামুদ শিপু, মো. বেলাল, মো. ফারুক, নজরুল, সুমন, রঞ্জু, আলী আকবর শাহীন, মো. মোস্তফা কবির সাকিব, নুরুল আজিম নয়ন, মো. সবুজ, মো. ফেরদৌস, শাহীন, নজির, মঞ্জু, হৃদয়, সাগর, রাব্বি, আজাদ, জাহিদ প্রমুখ।
মহানগর পূজা পরিষদ : পূজা উদ্যাপন পরিষদ মহানগর সহ-সভাপতি লায়ন দুলাল চন্দ্র দে এর নেতৃত্বে কোতোয়ালী, চকবাজার, সদরঘাট থানা পূজামন্ডপ পরিদর্শন করেন যুগ্ম সম্পাদক মিথুন মল্লিক, সাংগঠনিক সম্পাদক সজল দত্ত, সিনিয়র সদস্য নিখিল ঘোষ, এড. গৌতম সিংহ হাজারী, চন্দন পালিত, প্রিয়তোষ ঘোষ রতন, অরুন রশ্মি দত্ত, রাজীব চৌধুরী মিল্টন, পিন্টু দত্ত তমাল, নারায়ণ সিংহ, সঞ্জয়িতা দত্ত পিংকী, অমিত মজুমদার নয়ন, কোতোয়ালী থানা পূজা পরিষদের সভাপতি লিটন কুমার শীল, প্রকৌশলী সৈকত দাশ, অঞ্জন দত্ত এবং চকবাজার থানা পূজা উদ্যাপন পরিষদের সভাপতি লিটন দাশ ইফতি, সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী বিপ্লব কুমার দাশ বাপ্পী, সাবেক সভাপতি হারাধন মিত্র, সহ-সভাপতি রুমন ভট্টাচার্য্য, রঞ্জন দাশগুপ্ত, উজ্জ্বল চক্রবর্তী, যুগ্ম সম্পাদক রুপন দাশ, তপন দাশ, লিটন দাশ ইমন, সঞ্জয় দাশ, লিটন দাশ, দেবী সরকার, সদরঘাট থানা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি রাজীব নন্দী বাবু, সাধারণ সম্পাদক বাপ্পী দাশ, সাবেক সভাপতি শ্যামল দাশগুপ্ত। পরিদর্শনে পূজা পর্যবেক্ষক টিমে উপস্থিত ছিলেন অসীম কুমার দে, সুজন ঘোষ, পূজা ঘোষ, বিপ্লব ঘোষ, সঞ্চয় দেব, পার্থ দাশগুপ্ত, রুবেল দে, সত্যজিৎ ঘোষ, জয়দেব পাল, ধীমান সরকার, সঞ্জিব শীল, রিংকন দাশ, রিপন কান্তি দাশ তাপস দেব। এসময় পরিষদ নেতৃবৃন্দ বিভিন্ন পূজা পরিদর্শন ও পূজার্থীদের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। বক্তারা বলেন, আমাদের অবশ্যই মনে রাখতে হবে ধর্ম যার যার কিন্তু উৎসব ধর্ম-বর্ণ-নির্বিশেষে সবার। এ সত্যকে বুকে ধারণ করে সকলকে উৎসবে একাকার হতে হবে। প্রতিমা বিসর্জনের দিন ৮ অক্টোবর সকাল ১০টা থেকে সন্ধ্যা ৬টার মধ্যে বিসর্জন সমাপ্ত করার জন্য এবং ঐদিন রং, পটকা, আতশবাজি, সাউন্ডসিস্টেম ইত্যাদি থেকে বিরত থাকার বিশেষ অনুরোধ জানিয়েছেন।
দক্ষিণ নালাপাড়া পূজামন্ডপ : শারদীয় দুর্গোৎসব উপলক্ষে গত ৫ অক্টোবর নগরীর দক্ষিণ নালাপাড়া সার্বজনীন পূজামন্ডপ প্রাঙ্গণে পালস্ ক্লিনিক্যাল ল্যাবরেটরির উদ্যোগে দিনব্যাপী বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা, ডায়াবেটিস পরীক্ষা ও রক্তের গ্রুপ নির্ণয় অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রায় পাঁচ শতাধিক নারী-পুষ চিকিৎসা সেবা গ্রহণ করেন। পালস্ ক্লিনিকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডা. সজিব তালুকদারের সার্বিক তত্ত্বাবধানে চিকিৎসা সেবা প্রদান করেন- কার্ডিওলজিস্ট ডা. মোজাম্মেল হোছাইন, চর্মরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. অসীম কুমার চৌধুরী, ডায়াবেটিস অভিজ্ঞ ডা. পৃথ্বীরাজ কর, মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডা. অনিক চন্দ, গাইনী রোগ বিশেষজ্ঞ ডা. আঁখি দত্ত, দন্ত রোগ বিশেষজ্ঞ ডা. জয়া রায় চৌধুরী ও ডা. মিল্টন সেনগুপ্ত। সহযোগিতায় ছিলেন লায়ন্স ক্লাব।
৩১নং আলকরণ ওয়ার্ড : নগরীর ৩১নং আলকরণ ওয়ার্ডের আওতাধীন ৬টি দুর্গাপূজা মন্ডপ যথাক্রমে পি.কে সেন কম্পাউন্ড, দোভাষ কলোনী, শ্রী কালী চক্রবর্তী কলোনী, শ্রী রক্ষাকালী বাড়ী, পোস্টঅফিস গলি ও কালী বাড়ী দুর্গাপূজা মন্ডপে কেন্দ্রিয় ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সম্পাদক ইয়াছির আরাফাতের নিজ উদ্যোগে প্রতিটি মন্ডপে পূজারীদের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ, মন্ডপ নগদ অর্থ অনুদান ও বস্ত্রসামগ্রী গত ৫ অক্টোবর বিতরণ করা হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন পি.কে সেন কম্পাউন্ড শারদীয় পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি অনুপম ঘোষ অপু, সাধারণ সম্পাদক দীপক চৌধুরী, উপদেষ্টা অসীম দাশ বাবলা, সহ-সভাপতি রাম চক্রবর্তী, যুগ্ম সম্পাদক হরিপদ দাশ, সুদীপ দাশ, ব্যবস্থাপনা সমন্বয়ক সুভাষ কান্তি বিশ্বাস, দোভাষ কলোনী শ্রী রামঠাকুর মন্দির পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি চন্দন দাশ, টিপু মিত্র, নয়ন দে, সাধারণ সম্পাদক ইমন দাশ, রাজেশ চৌধুরী, অর্থ সম্পাদক হৃদয় আকাশ, সনত, টারজেন, টিংকু দত্ত, কালী চক্রবর্তী কলোনী পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি রাজীব ভট্টাচার্য্য, সাধারণ সম্পাদক ডা. সঞ্জীত চক্রবর্তী অপু, অর্থ সম্পাদক অসীম দাশ, উপদেষ্টা অধীর দে, প্রতাপ চৌধুরী, স্বপন দাশ ভুট্টো, শ্রী রক্ষাকালী বাড়ী পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি মিঠুন দত্ত, সাধারণ সম্পাদক বাপ্পী সেন, আদিত্য দাশ জয়, রাজিব দত্ত, মেট্রোপলিটন হকার্স সমিতির সহ-সভাপতি শাহ আলম ভূঁইয়া, মীর মোহাম্মদ ইকবাল, সৈয়দুল ইসলাম, সরোয়ার আহমেদ, মো. দুলাল খান, মো. রাসেল, আবদুল মালেক, নাছির উদ্দিন কুতুবী, মোস্তফা কামাল, জালাল আহমেদ রানা, মো. পারভেজ, মো. কাউসার উদ্দিন, তামজিদ কামরান, ইফতেখার শাকিল, মো. ইয়াছিন, সাদ্দাম হোসেন, ইমদাদুর রহমান রিয়াদ, সুমন, মো. আবু ইউসুফ মাহমুদ, সাকের উল্লাহ আসেক, ইন্দ্রজিৎ ভট্টাচার্য্য, মো. রাব্বি হোসেন আদি, মহসীন মোল্লা, আহসান উল্লা, আরিফুল ইসলাম জয় প্রমুখ।
মহিলা সংঘ দুর্গাপূজা উদ্যাপন পরিষদ : এনায়েত বাজারস্থ গোয়ালপাড়ায় মহিলা সংঘ দুর্গাপূজা উদ্যাপন পরিষদের পূজামন্ডপ পরিদর্শন করছেন ফাইট ফর ওমেন রাইটস এর সভাপতি ও সাবেক কাউন্সিলর এড. রেহানা বেগম রানু। গত ৫ অক্টোবর উক্ত পূজামন্ডপ পরিদর্শকালে এড. রেহানা বেগম রানু বলেন, আসম্প্রদায়িক চেতনায় আমরা বিশ্বাসী। বিশ্ব মানবতার জননী জননেত্রী শেখ হাসিনার যোগ্যনেতৃত্বে সৌহার্দপূর্ণ পরিবেশে প্রত্যেক ধর্মাবলম্বী মানুষ সুষ্ঠু, সুন্দর ও নিরাপত্তার সাথে ধর্মীয় উৎসব পালন করছে। মানবতাই বড় ধর্ম। এসময় উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সভাপতি মীনা চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক গীতা রুদ্র, শংকরী সেন, ইন্দ্রিরা ঘোষ, পূরবী রুদ্র, গীতা ঘোষ, রুমা দাশ, রিপা চৌধুরী, দেবীকা ঘোষ, মায়া চক্রবর্তী প্রমুখ।
বাকলিয়ায় শ্রীকৃষ্ণ মন্দির : নগরীর বাকলিয়ার ক্ষেতচরে সার্বজনীন শ্রীকৃষ্ণ মন্দিরে শারদীয় দুর্গোৎসব উপলক্ষে গত ৫ অক্টোবর দিনব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচির আয়োজন করা হয়। মন্দির প্রাঙ্গণে আয়োজিত কর্মসূচির মধ্যে ছিল-মাতৃপূজা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, মন্দির কার্যালয় উদ্বোধন, পুরস্কার বিতরণ, গীতাপাঠ প্রতিযোগিতা, নবনির্বাচিত কর্মকর্তাদের শপথগ্রহণ, ধর্মসম্মেলন। মাতৃপূজার উদ্বোধন করেন সীতাকুন্ড শংকর মঠ ও মিশনের স্বামী জগদীশ্বরানন্দ গিরি মহারাজ। মন্দির পরিচালনা পরিষদের সভাপতি লায়ন দিলীপ কুমার শীলের সভাপতিত্বে ধর্মসম্মেলনে মঙ্গলপ্রদীপ প্রজ্বালন করেন বাগীশিক কেন্দ্রীয় সংসদের সভাপতি দেশপ্রিয় চৌধুরী বিনয়। উদ্বোধক ছিলেন বাগীশিক কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি ও দক্ষিণ জেলা জন্মাষ্টমী পরিষদের সাধারণ সম্পাদক শিল্পপতি ঝুন্টু চৌধুরী। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন সমাজসেবক ও সংগঠক মিলন কান্তি শর্মা।
প্রধান বক্তা ছিলেন বাগীশিক কেন্দ্রীয় প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক পলাশ কান্তি নাথ রণী। বাচিক শিল্পী স্বপন বিশ্বাসের সঞ্চালনায় ধর্মসম্মেলনে স্বাগত বক্তব্য রাখেন মন্দির পরিচালনা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক জলসন ধর নয়ন। বিশেষ অতিথি ছিলেন ক্ষেতচর বাস্তুহারা সমিতির সভাপতি শামশুল আলম তালুকদার, মন্দির কর্মকর্তা কানু চৌধুরী, বিজন চক্রবর্তী, দেবাশীষ মুহুরী, কেশব দাশ, সুকুমার দাশ, নান্টু মল্লিক। মন্দির কার্যালয় উদ্বোধন করেন মন্দিরের প্রধান উপদেষ্টা নিরঞ্জন দাশ। মন্দির পরিচালনা পরিষদের নবনির্বাচিত কর্মকর্তাদের শথপবাক্য পাঠ করান প্রধান অতিথি। অনুষ্ঠানে অন্যদরে মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সুমন ধর, জনি দত্ত, প্রীতম চৌধুরী, মুক্তাশ্বর দাশ মিঠু, দীপ্ত দত্ত, সমীর সেন, মধু খাস্তগীর, এস.কে পাল, রনি খাস্তগীর, আশীষ মহাজন, সুমন বিশ্বাস, জীবন চৌধুরী প্রমুখ।