সমাজসেবার তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল

বাঁশখালীর বয়স্ক ভাতার সব তালিকা যাচাই এবার

নিজস্ব প্রতিবেদক

34

অপ্রাপ্ত বয়স্কদের বয়স্ক দেখিয়ে ভাতা তালিকায় নাম অর্ন্তভুক্ত করায় সমাজকর্মী দেলোয়ার হোসেনকে বদলির সুপারিশ করেছেন সমাজসেবা অধিদপ্তরের গঠিত তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি। একইসাথে পৌরসভার জনপ্রতিনিধিদের দেয়া তালিকার কারণেই এমন অনিয়ম হয়েছে বলে প্রতিবেদনে তুলে ধরা হয়েছে। গত রবিবারে সমাজসেবা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক বরাবরে জমা দেয়া প্রতিবেদন এমন তথ্য তুলে ধরা হয়েছে। তবে অভ্যন্তরীণ তদন্ত কমিটি হওয়ায় বাইরের কেউ জড়িত থাকার চেয়ে সমাজসেবার কেউ এমন অনিয়মে জড়িত আছে কিনা তদন্তকালে সে বিষয়েই জোর দেয়া হয়েছে বলে জানান তদন্ত সংশ্লিষ্টরা।
তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের বিষয়টি নিশ্চিত করে হাটহাজারী উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা ও তদন্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ আলমগীর পূর্বদেশকে বলেন, ‘আমরা আমাদের কর্মীদের বিষয়ে তদন্ত করেছি। আমরা বাইরের কাউকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারি না। বাইরের কেউ জড়িত থাকলে তাদের প্রশাসনের প্রতিবেদনে দোষী করা যাবে। প্রতিবেদনে সমাজসেবার কর্মীদের দায়িত্বহীনতা ও গাফিলতি উল্লেখ করে বদলির সুপারিশ করা হয়েছে। বিশেষ করে সমাজকর্মী দেলোয়ারকে হোসেনকে বদলির সুপারিশ করা হয়েছে। আরো কেউ জড়িত থাকার বিষয়ে প্রতিবেদনে তুলে ধরা হলেও আমরা তার সংশ্লিষ্টতা বেশি পেয়েছি।’
চট্টগ্রাম জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মোহাম্মদ শহীদুল ইসলাম পূর্বদেশকে বলেন, ‘তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন পাওয়ার পরপরই তা উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠানো হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা যে অসঙ্গতিগুলো পেয়েছেন তা সঠিক আছে। তালিকাগুলো পৌরসভা ও ইউনিয়ন থেকে আসে। উনারাই এমন তালিকা জমা দিয়েছেন। আমাদের কর্মীরা জনপ্রতিনিধিদের অসঙ্গতির কথা জানালেও তারা বয়স্ক ভাতা পাওয়ার যোগ্য বলে মত দিয়েছেন। এখানে আমাদের কেউ জড়িত হওয়ার সুযোগ নেই। এরপরেও উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ যদি মনে করে আরো অধিকতর তদন্ত করতে হবে তবে হয়তো কেউ জড়িত থাকলে উঠে আসবে।’
এদিকে উপজেলা পরিষদে জমা দেয়া ১৪ ইউনিয়নের প্রায় এক হাজার ১০০ নতুন বয়স্ক ভাতাভোগীর তালিকা যাচাইয়ের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। ইউনিয়ন যাচাই-বাছাই কমিটির আহবায়ক হিসেবে উপজেলা চেয়ারম্যান এ উদ্যোগ নিয়েছেন। ইতোমধ্যে এসব তালিকা যাচাই তিন সদস্যের একটি কমিটিও করা হয়েছে। উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মুহাম্মদ ফয়সাল আলমকে প্রধান করে গঠিত কমিটির অপর দুই সদস্য হলেন উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা দেলোয়ার হোসাইন ও ফিল্ড সুপারভাইজার কল্পনা রানী কর্মকার।
বাঁশখালী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান চৌধুরী মোহাম্মদ গালিব সাদলী পূর্বদেশকে বলেন, ‘সমাজসেবায় নতুন ১১’শ বয়স্ক ভাতাভোগী যুক্ত হচ্ছে এবার। পৌরসভা তালিকায় অসঙ্গতি পাওয়ার পর আমি ইউনিয়নের নতুন তালিকা যাচাই-বাছাই করার কথা সমাজসেবাকে জানিয়ে দিয়েছি। তারা আমার কাছে জমা দেয়া কাগজপত্রগুলো আবার ফেরত চেয়েছির। আমি দিইনি। এখন তিন সদস্যের একটি কমিটি করে দিয়েছি। তাঁরাই যাচাই-বাছাই করে আমাকে প্রতিবেদন দিলে আমি স্বাক্ষর করবো।’
বাঁশখালী উপজেলা প্রশাসন গঠিত তদন্ত কমিটির প্রধান ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. আতিকুর রহমান পূর্বদেশকে বলেন, ‘আমাদের তদন্ত কাজ এখনো শেষ হয়নি। আমরা বিস্তারিত ঘটনা উদঘাটন করেই চুড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিল করবো। আগামী সপ্তাহে এ প্রতিবেদন দাখিল করতে পারি।’