বাঁশখালীতে ডাকাতের হামলায় আহত ৩ আটক ৩

নিজস্ব প্রতিবেদক

6

বাঁশখালী উপজেলার চেচুরিয়া এলাকায় ভ্রাম্যমাণ সিএনজি গ্যাস স্টেশন’র কাভার্ডভ্যানে থাকা ৩ ব্যক্তি ডাকাতের হামলায় আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। বাসায় ফেরার পথে ডাকাতের দলের এই হামলায় ব্যবস্থাপকসহ তিনজন আহত হয়েছেন। গত বুধবার রাত সাড়ে ১০ টার দিকে ঘটনাটি ঘটে। আহতদের চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। পরে রাতেই অভিযান চালিয়ে তিনজনকে আটক করে পুলিশ।
স্থানীয়রা জানায়, কাভার্ডভ্যানে সিলিন্ডারের মাধ্যমে পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ এই গ্যাস স্টেশনটি বন্ধ করে বাসায় ফেরার পথে পুরান ব্রিক ফিল্ড ব্রিজে উঠতেই ডাকাতের দল গাড়ির ৩ জনকে ঘিরে ধরে। একপর্যায়ে ডাকাতের দল তাদের কাছে থাকা টাকা লুটে নেয়। এসময় বাধা দিতে গেলে ডাকাতরা তিনজনকে মারধর ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে। এতে আহতরা হলেন ভ্রাম্যমাণ সিএনজি স্টেশনের ব্যবস্থাপক মোহাম্মদ সবুজ (৩৫), কর্মচারী খাইরুল ইসলাম (২৯) ও রফিকুল ইসলাম (৪৭)। তিনজনের বাড়িই জামালপুরে। এ ঘটনায় রাতেই মিশু, আবছার ও সুমন নামে তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ। তাদের প্রত্যেকের বাড়ি ঘটনাস্থলের কাছেই।
হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, আহতদের মধ্যে মোহাম্মদ সবুজের পেটে ছুরিকাঘাত করা হয়েছে। তাঁর পেটের ভুঁড়ি বের হয়ে গেছে। রফিকুল ইসলামের মাথায় ধারালো অস্ত্রের কোপ রয়েছে। মারধরের কারণে মুখমন্ডলসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত পেয়েছেন খাইরুল ইসলাম।
আহত রফিকুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, প্রতিদিনের মতো স্টেশনে কাজ শেষে টাকা নিয়ে বাসায় ফেরার পথে চার থেকে পাঁচজন ব্যক্তি আমাদের উপর হামলা চালায়। রাস্তার পাশের ঝোঁপ থেকে হঠাৎ করে বের হয়ে তারা আমাদের ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত এবং মারধর করে টাকা নিয়ে পালিয়ে যায়। স্টেশনের অদূরেই আমাদের বাসা।
রাতে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা বাঁশখালী থানার ওসি (তদন্ত) কামাল উদ্দিন বলেন, ভিডিও ফুটেজ দেখে ভোর চারটায় সন্দেহভাজন তিনজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। ঘটনার আগে তাদের গতিবিধিসহ সন্দেহজনক কিছু বিষয় যাচাই করা হচ্ছে।
বাঁশখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল করিম মজুমদার বলেন, ঘটনাটি ভালোভাবেই তদন্ত চলছে। লুট হওয়া টাকা উদ্ধারের চেষ্টা চলছে। গ্যাস স্টেশনের মালিক মামলা করবেন বলে জানা গেছে। আটককৃত তিনজনকে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।