দীঘিনালায় সোলার বিতরণ অনুষ্ঠানে কুজেন্দ্র ত্রিপুরা

বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন সোনার বাংলা বাস্তবায়নে শেখ হাসিনা প্রতিজ্ঞাবদ্ধ

দীঘিনালা প্রতিনিধি

13

খাগড়াছড়ি দীঘিনালা উপজেলায় বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান ও গরীব ও দুঃস্থ পরিবারের মাঝে সোলার বিতরণ করা হয়েছে। রবিবার (১ সেপ্টম্বর) দীঘিনালা উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির আয়োজনে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় কর্তৃক বরাদ্দকৃত ২০১৮-২০১৯ অর্থ বছরের কাবিটা এবং টি.আর.২য় পর্যায় কর্মসূচী নির্বাচনী এলাকাভিত্তিক বারদ্দ খাতে হতে দীঘিনালা উপজেলায় বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে ও গরীব দুঃস্থ পরিবারের মাঝে সোলার বিতরণ উপলক্ষে শিল্পকলা একাডেমিতে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। উপজেলা ইউআরসি কর্মকর্তা মাইন উদ্দিনের সঞ্চালনায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ উল্লাহর সভাপতিত্বে এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন- উপজেলা প্রকল্প বাস্থবায়ন কর্মকর্তা মো. কাউছার আলম সরকার। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন খাগড়াছড়ি ২৯৮ নং আসনের সংসদ সদস্য কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি। এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও দীঘিনালা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুহাম্মদ কাশেম, খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদ সদস্য ও জেলা পরিষদ মৎস্য আহবায়ক মিজ শতরূপা চাকমা, দীঘিনালা থানা অফিসার ইনজার্চ (ওসি) উত্তম চন্দ্র দেব প্রমুখ।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্ন ছিল বাংলাদেশকে সোনার বাংলা গড়ার, বঙ্গবন্ধুর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তা বাস্তবায়নে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। তাই উন্নয়নের ধারাবাহিকতায় প্রতি ঘরে ঘরে আলোয় আলোকিত হবে। থাকবে না কোন অন্ধকার, সোলারের আলো আলোকিত হবে প্রতিটি ঘর। ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও মেম্বারদের উদ্দেশে তিনি আরো বলেন , এমন অভিযোগ আছে ১০/১৫হাজার টাকা সোলার চেয়ারম্যান, মেম্বাররা ৫হাজার টাকা বিনিময় বেচা কেনা করে সরকারের লক্ষ্য অর্জনে বিঘœ ঘটাবে এমন অভিযোগ প্রমাণ হলে তার স্থান হবে জেলখানা। এছাড়া তিনি আরো সোলারের মত ২বছর মেয়াদী ভিজিডি কার্ড থেকে ২০/৩০ হাজার টাকা নেয়ার অভিযোগ রয়েছে যদি প্রমাণিত হয় তাদের জায়গাও হবে জেল খানায়।
আলোচনা সভা শেষে বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান ও গরীব দুঃস্থ পরিবারের মাঝে সোলার তুলে দেন প্রধান অতিথি কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি।