বঙ্গবন্ধুকে উপহার দেওয়া গাজীর কবিতা নিয়ে বিশ্বজিতের গান

0

দেশ স্বাধীন হওয়ার পর ‘হে বন্ধু, বঙ্গবন্ধু’ শিরোনামের একটি কবিতা লেখেন দেশবরেণ্য গীতিকবি-চলচ্চিত্র নির্মাতা ও বীর মুক্তিযোদ্ধা গাজী মাজহারুল আনোয়ার। সেই সময় গানটি উপহার হিসেবে বঙ্গবন্ধুকে দিয়েছিলেন তিনি। এবার সেই কবিতাটি গান করে কণ্ঠে তুললেন গুণী সংগীতশিল্পী কুমার বিশ্বজিৎ।
হে বন্ধু, বঙ্গবন্ধু তোমার কালো ফ্রেমের চশমাটা আমাকে দাও
আমি চোখ দিয়ে দেখবো এ দেশটাকে তুমি কতো ভালোবাসো
যতোবার চাই কাছে পেতে, ততোবার তুমি আসো
আমার গানের মতো আসো, আমার কবিতার মতো আসো।
কবিতাটি প্রসঙ্গে গাজী মাজহারুল আনোয়ার বাংলানিউজকে বলেন, ‘যুদ্ধে জয় লাভের পর বঙ্গবন্ধুকে অনেকেই অনেক উপহার দিতে থাকলেন। আমিও অনেক ভাবার পর একজন লেখক হিসেবে কবিতা উপহার দেওয়ার সিদ্ধান্ত ঠিক করি। কবিতাটি পড়ে তিনি অনেক খুশি হলেন। কবিতাটি পরবর্তীতে তিনি বাঁধাই করে বাসার দেয়ালে টানিয়ে রাখেন। আর এ বিষয়টি ছিল আমার জন্য অনেক আনন্দের ও গর্বের। অবশ্য এমনিতেই তিনি আমাকে অনেক পছন্দ করতেন, ভালোবাসতেন এবং আদর করতেন।’ তিনি আরও বলেন, ‘কিছুদিন আগে বিশ্বজিৎ এই কবিতাটিকে গান বানানোর জন্য আমার অনুমতি চাই। আমি বললাম, এটা তো আনন্দের খবর। কাজ শুরু করো। এরপর মূল কবিতাটা ঠিক রেখেই গানটি তৈরি করেন বিশ্বজিৎ। প্রাথমিক অবস্থায় গানটি শুনেছি, ফাইনাল ট্র্যাকটি অচিরেই আমাকে শোনাবে বলে বিশ্বজিৎ জানালো। সবকিছু ঠিকঠাক মতো করতে পারলে আশা করি ভালো কিছুই দাঁড়াবে।’ গাজী মাজহারুল আনোয়ারের কথায় বিশ্বজিতের কণ্ঠে ‘হে বন্ধু, বঙ্গবন্ধু’ গানের সংগীতায়োজন করেছেন গুণী সংগীত পরিচালক মানাম আহমেদ। সুরারোপে ক্লোজআপ তারকা কিশোর দাস। গানটিকে ঘিরে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে তৈরি হচ্ছে তার জীবনীভিত্তিক প্রামাণ্যচিত্র। এটি বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীতে প্রকাশ করা হবে বলে একুশে পদকপ্রাপ্ত গীতিকবি মাজহারুল আনোয়ার জানিয়েছেন।