ফ্রিজে রাখা লেবুর আশ্চর্যজনক উপকারিতা

23

আমাদের প্রতিদিনের খাবারের সঙ্গ বা জুস হিসেবে লেবু থাকছে সব সময়। আপনি কি জানেন, এই লেবু ক্যানসার প্রতিরোধ করা, ওজন কমানো ও ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ করার মতো কাজও করে? এমনকি লেবুর জুসের চেয়ে এর খোসা আরো বেশি পুষ্টিকর ও বেশ কিছু রোগ নিরাময় করে, এমনটা প্রমাণিত হয়েছে।
মজার ব্যাপার হচ্ছে, লেবুর আরো উপকারিতা পেতে হলে তা ফ্রিজে রাখার পরামর্শ দিয়েছেন পুষ্টিবিদরা। তাদের মতে, ফ্রিজে থাকা লেবুর আশ্চর্যজনক উপকারিতা রয়েছে।
ফ্রিজে থাকা লেুবর গুণ
ফ্রিজে রাখা লেবুর খোসায় রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর গুরুত্বপূর্ণ উপাদান থাকে, যা কোলেস্টেরলের মাত্রা ঠিক রাখে ও ক্যানসার প্রতিরোধ করে। এতে প্রচুর ভিটামিন এ, বি সিক্স, সি, ই, আয়রন, জিংক, পটাশিয়াম, আঁশ ও প্রোটিন থাকে। ফ্রিজে রাখা লেবুতে ফ্ল্যাভনয়েড ও লিমোনয়েড থাকে, এসব উপাদান দেহকোষ শক্তিশালী করে ও ফ্রি র‌্যাডিকেলস দমনে ভূমিকা রাখে। গবেষণায় দেখা গেছে, ফ্রিজে রাখা লেবু টিউমার, ডায়াবেটিস প্রতিরোধ করে। এছাড়া তা রক্তের সুগারের মাত্রা ও রক্তচাপ ঠিক রাখে এবং ওজন কমাতে সাহায্য করে। গবেষকরা বলছেন, লেবুতে ক্যানসার প্রতিরোধক বেশ কিছু উপাদান, যেমন- ভিটামিন সি, গøাইকোসাইড, পেকপিন ও লিমোনেন আছে। আর লেবুর খোসা মানুষের শরীর থেকে টক্সিক বা ক্ষতিকর উপাদান বের করে দেয় বলেও জানিয়েছেন গবেষকরা।
লেবু ফ্রিজে রাখবেন যেভাবে
লেবুর খোসায় যেহেতু পুষ্টিগুণ বেশি, তাই আগে ট্যাপের পানি দিয়ে ভালো করে ধুয়ে নিতে হবে লেবুগুলো। এরপর তা জীবাণু মুক্ত করতে বেকিং সোডা বা অ্যাপল সিডার ভিনেগার ব্যবহার করুন। পরে আবারো ট্যাপের পানিতে সেসব লেবু ধুয়ে ফ্রিজে রাখতে হবে পুরো রাত।
ফ্রিজের লেবু ব্যবহার করবেন যেভাবে
ঠান্ডা হওয়ার পর লেবু ফালি ফালি করে কেটে একটি গ্লাস জারে নিন, এরপর তা আবারো ফ্রিজে রেখে দিন। পরে প্রয়োজন মতো সেই লেবু ব্যবহার করতে পারবেন। অনেক পুষ্টিবিদ লেবুর পুষ্টিগুণ সম্পন্ন খোসা সালাদের ওপর, স্যুপ, জুসে ব্যবহারের পরামর্শ দেন। এছাড়া ত্বকের সৌন্দর্যে কাজে লাগাতে পারেন লেবুর খোসা। মৃতকোষ দূর করার পাশাপাশি ত্বকে ময়েশ্চারাইজিং সুবিধাও পাবেন।

তথ্যসূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া