ফটিকছড়িতে ইয়াবা কারবারীকে সমাজচ্যুত করল গ্রামবাসী

ফটিকছড়ি প্রতিনিধি

5

মরণনেশা ইয়াবা বিক্রিসহ নানা অসামাজিক কার্যকলাপে জড়িত থাকার অপরাধে এক ব্যক্তিকে সমাজচ্যুত করেছে এলাকাবাসী। আনুষ্ঠানিক রেজুলেশনের মাধ্যমে উক্ত ব্যক্তি ও তার পরিবারের সাথে সামাজিক সম্পর্ক ছিন্ন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। গত শনিবার রাতে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। ঘটনাটি ঘটেছে চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি উপজেলার ভূজপুর থানাধীন দাঁতমারা ইউনিয়নের বাংলাপাড়া গ্রামে।
স্থানীয় লোকজন জানায়, গ্রামের আক্কাস মিয়ার ছেলে মো. সোহেল দীর্ঘদিন যাবৎ এলাকায় ইয়াবা ব্যবসার সাথে জড়িত। এ কাজে তার পিতাসহ পরিবারের অন্যান্য সদস্যরাও তাকে সহযোগিতা করে আসছে। আক্কাস মিয়ার বাড়িতে প্রতিদিন শত শত অপরিচিত ব্যক্তি মোটরসাইকেল যোগে যাতায়াত করে ইয়াবা সংগ্রহ ও বিক্রি করেন। ইদানিং প্রশাসনের নজরদারিতে পড়ে উক্ত সোহেল এলাকা ছাড়া হলেও তাদের বাড়িতে অপরিচিত লোকজনের আনাগোনা কোন অংশে কমেনি। বরং বেড়েছে। ফলশ্রæতিতে এলাকার লোকজন এই সিদ্ধান্তে উপনীত হন যে- ওই পরিবারকে সমাজচ্যুত করা হবে। ফলে গত শনিবার রাতে স্থানীয়দের নিয়ে একটি বৈঠকের মাধ্যমে পরিবারটিকে বয়কট করাসহ সমাজচ্যুতের ঘোষণা দেন। এসময় এলাকার শত শত গ্রামবাসী ছাড়াও সমাজের তিন সর্দার যথাক্রমে আবুল হোসেন ভূঁইয়া, করিমুল হক ও মাহবুল আলম উপস্থিত ছিলেন। বৈঠকে থাকা বাংলাপাড়া সমাজের সর্দার আবুল হোসেন ভূইয়া জানান, ‘গ্রামবাসী ওই পরিবারের সদস্যদের অসামাজিক কার্যকলাপে অতিষ্ঠ হয়ে এ সিদ্ধান্ত নেন। তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগের শেষ নেই। আমাদের ক্ষমতা যতটুকু ছিল ততটুকুই আমরা করেছি।’
স্থানীয় দাঁতমারা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য মুহাম্মদ নবী বলেন, ‘অসামাজিক কার্যকলার বন্ধে এ ধরনের উদ্যোগ বা সিদ্ধান্ত ছাড়া আর কোন কিছু করার উপায় ছিলনা। এলাকার লোকজন অসামাজিক কার্যকলাপ প্রতিরোধে বর্তমানে এগিয়ে আসছে। এটি তার উদাহারণ। এটি অবশ্যই ভাল উদ্যোগ।’
দাঁতমারা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মুহাম্মদ জানে আলম বলেন, ‘আইনে সামাজিক ভাবে বয়কট করাকে সমর্থন না করলেও প্রকৃত অর্থে ইয়াবা কারবারী, চোরা কারবারী এবং অসামাজিক কার্যকলাপে জড়িতদের বিরুদ্ধে যে কারো অবস্থানকে আমি নৈতিকভাবে সমর্থন করি।’