প্রবাসীদের বিশেষ নাগরিক মর্যাদা দেওয়ার আহবান

3

বৈদেশিক মুদ্রা উপার্জনকারী প্রবাসীদের বিশেষ নাগরিক মর্যাদা প্রদানের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি আহবান জানিয়েছেন জনদুর্ভোগ লাঘবে জনতার ঐক্য চাই শীর্ষক নাগরিক উদ্যোগের প্রধান উপদেষ্টা ও মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি খোরশেদ আলম সুজন। তিনি বুধবার বিকাল ৪টায় জামালখানস্থ একটি বেসরকারি সংস্থার কার্যালয়ে চট্টগ্রামের জেলা ও বিভিন্ন উপজেলায় বসবাসরত প্রবাসীদের সাথে বিমান বন্দরে যাত্রী হয়রানি, বিভিন্ন ধরনের দুর্ভোগ এবং ভোগান্তি নিয়ে মতবিনিময় করেন।
এ সময় জনাব সুজন বলেন, প্রবাসীরা হচ্ছে দেশের উন্নয়নের অন্যতম চালিকাশক্তি। তারা আনুষ্ঠানিকভাবে জাতীয় অর্থনীতিতে অবদান রাখছে এমনকি অনানুষ্ঠানিকভাবেও তাদের অবদান আছে। বিদেশের বিভিন্ন দেশে অবস্থান করে বিপুল সংখ্যক প্রবাসী চাকুরী এবং ব্যবসা বাণিজ্যের মাধ্যমে টাকা উপার্জন করছে। তাদের কষ্টার্জিত টাকাগুলো বৈধপথে দেশে পাঠাতে গেলে অনেক সময় বিড়ম্বনায় পড়তে হয়। যখন তারা জীবিকার তাগিদে দেশের বাইরে যান তখন বিমানবন্দরে ইমিগ্রেশন কর্মকতারা তাদের সাথে নির্মম অমানবিক নির্যাতন করে থাকে। এমনকি আইনসিদ্ধভাবে বিদেশ গমণকারীদেরও আর্থিক উৎকোচ দিয়ে বিমানবন্দর অতিক্রম করতে হয়। তাছাড়া বিদেশ ফেরত যাত্রীরা কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে মালামাল সংগ্রহের পর্যাপ্ত সময়ও পান না। তিনি প্রবাসীদের জন্য ভিআইপি এবং সিআইপিরা যেভাবে সেবা পেয়ে থাকে ঠিক একইভাবে সেবা প্রদানের লক্ষ্যে আলাদা কাউন্টার স্থাপন করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে দাবি জানান। প্রবাসীদের প্রবাসী কার্ড প্রদানের ক্ষেত্রে ৬০ বৎসরের বয়সসীমা শিথিল করার অনুরোধও জানান সুজন।
সভা শেষে প্রবাসীদের বিভিন্ন দাবি দাওয়া এবং সুযোগ সুবিধা নিশ্চিতের জন্য একটি প্রবাসী কল্যাণ পরিষদ গঠন করা হয়। এ সময় বিভিন্ন দেশের প্রবাসীদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন এ জে এম জাহাঙ্গীর, জাকের হোসেন, এস এম মুছা মিরদাদ, অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান, অধ্যাপক মো. আবু হেনা, হোসেন সৈয়দুর জামাল চৌধুরী, কামাল উদ্দিন আহাম্মদ, সহিদ উল্লা চৌধুরী, গোলাম মোস্তফা, জাকের হোসেন, জামাল উদ্দিন, মো. ইসহাক, সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী, নাগরিক উদ্যোগের সদস্য সচিব হাজী মো. হোসেন, মো. নিজাম উদ্দিন, মোরশেদ আলম, সমীর মহাজন লিটন প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি