প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণার জন্য টিকার ট্রায়ালে তড়িঘড়ি : ইয়েচুরি

25

চিকিৎসা বিজ্ঞানের উদ্ভাবনে কোনো কিছু চাপিয়ে দেওয়া যায় না বলে মন্তব্য করেছেন ভারতের কমিউনিস্ট পার্টি মার্ক্সবাদীর (সিপিআইএম) সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি। প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণার জন্য তড়িঘড়ি করে টিকার ট্রায়াল করা হচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি। অভিযোগ করে ইয়েচুরি বলেন, করোনার টিকা বাজারে ছাড়তে ১৫ আগস্টের মধ্যে ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল শেষ করতে নির্দেশ দিয়েছে ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিক্যাল রিসার্চ (আইসিএমআর)। আদতে স্বাধীনতা দিবসে প্রধানমন্ত্রী যাতে ঘোষণা করতে পারেন তাই এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।
ভারতের বায়োটেকের সঙ্গে যৌথ গবেষণায় করোনার টিকা তৈরি করা হয়েছে। কিন্তু সেই ভ্যাকসিন বাজারে ছাড়তে প্রয়োজন ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল। সেটি সময়সাপেক্ষ ব্যাপার। গবেষকরা জানান, মোট চারটি ধাপে ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল হয়। আর সেই ধাপ সম্পূর্ণ করতে সময় লাগে আট-নয় মাস। কিন্তু এখানে ভারত বায়োটেক সময় পাবে পাঁচ সপ্তাহ। তড়িঘড়িতে নেওয়া সিদ্ধান্ত হিতে বিপরীত না হয়। বিশেষজ্ঞদের এই বক্তব্যকে হাতিয়ার করে সীতারাম ইয়েচুরি টুইট বার্তায় বলেন, মহামারির হাত থেকে মানব সভ্যতাকে বাঁচাতে ভ্যাকসিন একমাত্র বিকল্প। বিশ্ব সেই ভ্যাকসিন আবিষ্কারের অপেক্ষায়। কিন্তু চিকিৎসা বিজ্ঞানের উদ্ভাবনীতে কোনও কিছু চাপিয়ে দেওয়া যায় না। স্বাস্থ্যবিধি ও মানব নিরাপত্তা উপেক্ষা করে তড়িঘড়ি মানব ট্রায়াল সম্পন্ন করা আদতে প্রধানমন্ত্রীকে ১৫ অগাস্টের ভাষণের অংশ করে দেওয়া।