ঈদে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট

প্রথমদিন ছাড়া হয় ১২ হাজার অবিক্রিত ১৭শ

নিজস্ব প্রতিবেদক

19

ঈদুল আজহা উপলক্ষে চট্টগ্রাম রেলস্টেশনে টিকিট বিক্রির প্রথমদিনে ছাড়া হয় ১২ হাজার টিকিট। এর মধ্যে এক হাজার ৭০০ টিকিট অবিক্রিত আছে। অবিক্রিত থাকা সবগুলো টিকিট আন্তঃনগর ট্রেনের। চাহিদার ভিত্তিতে পর্যায়ক্রমে এসব টিকিট বিক্রি হবে।
গতকাল অ্যাপসের মাধ্যমে সকাল ৬টা ও কাউন্টারে সকাল ৯টা থেকে টিকিট বিক্রি শুরু হয়। প্রথমদিনে আগামী ৭ আগস্টের টিকিট দেয়া হয়।
রেলওয়ে স্টেশন ম্যানেজার আবুল কালাম আজাদ পূর্বদেশকে বলেন, ‘সকাল থেকে যাত্রীরা শান্তিপূর্ণভাবে লাইনে দাঁড়িয়ে টিকিটের অপেক্ষায় ছিলেন। সকাল ৯টা থেকে কাউন্টারে টিকিট দেয়া হলে পর্যায়ক্রমে সবাই টিকিট পান। প্রথমদিনে আন্তঃনগর ট্রেনের সাত হাজার ১৭টি ও লোকাল ট্রেনের চার হাজার ৯৭৮টি টিকিট ছাড়া হয়। কাউন্টারে আন্তঃনগর ট্রেনের তিন হাজার ৫৮৮টি টিকিট রাখা হয়।
এরমধ্যে এক হাজার ৭০০টিকিট রয়ে যায়। যা চাহিদার ভিত্তিতে যাত্রীদের দেয়া হবে।’
রেলওয়ে সূত্র জানায়, আজ ৩০ জুলাই বিক্রি হবে ৮ আগস্টের টিকিট, ৩১ জুলাই ৯ আগস্টের, ১ আগস্ট ১০ আগস্টের, ২ আগস্ট ১১ আগস্টের টিকিট বিক্রি করা হবে। একইভাবে ৫ আগস্ট থেকে ফিরতি টিকিট বিক্রি শুরু হবে। সেদিন ১৪ আগস্টের ফিরতি টিকিট বিক্রি হবে। ৬ আগস্ট ১৫ আগস্টের, ৭ আগস্ট ১৬ আগস্টের, ৮ আগস্ট ১৭ আগস্টের, ৯ আগস্ট ১৮ আগস্টের ফিরতি টিকিট বিক্রি করা হবে।
রেলস্টেশনে দেখা যায়, সাতটি কাউন্টারে টিকিট বিক্রি করা হচ্ছে। প্রতিটি কাউন্টারের সামনেই যাত্রীরা লাইনে দাঁড়িয়ে টিকিট সংগ্রহ করেছেন। তবে প্রথমদিনে যাত্রীর চাপ ছিল কম। যারাই লাইনে দাঁড়িয়ে অপেক্ষা করেছেন তারা টিকিট পেয়েছে। ১নং কাউন্টারে মহিলা, ওয়ারেন্ট, রেলওয়ের পাশ, ২নং কাউন্টারে সুবর্ণ ও সোনার বাংলা এক্সপ্রেস, ৩নং কাউন্টারে পাহাড়িকা ও উদয়ন এক্সপ্রেসের, ৪নং কাউন্টারে তুর্ণা, মেঘনা এক্সপ্রেস ও চাঁদপুর স্পেশাল, ৫নং কাউন্টারে মহানগর গোধুলী, মহানগর এক্সপ্রেস, ৬নং কাউন্টারে বিজয় এক্সপ্রেস, চট্টলা এক্সপ্রেস এবং ৭নং কাউন্টারে চলতি টিকিট বিক্রি করা হয়। এবার রেলে আটটি স্পেশাল ট্রেন চলাচল করবে বলে জানা গেছে।