চসিকের ‘পরিচ্ছন্ন কর্মী নিবাস’

প্রকল্প একনেকে অনুমোদন ব্যয় ২৩১ কোটি ৪৩ লাখ টাকা

নিজস্ব প্রতিবেদক

37

গতকাল জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদে (একনেক) চসিকের ২৩১ কোটি ৪৩ লাখ টাকার পরিচ্ছন্ন কর্মী নিবাস প্রকল্প অনুমোদিত হয়েছে। রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে একনেক চেয়ারপারসন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত একনেক সভায় এ প্রকল্পের অনুমোদন দেয়া হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চসিকের প্রধান নির্বাহী মো. সামসুদ্দোহা।
এ বিষয়ে চসিক সূত্র জানায়, বর্তমানে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের পরিচ্ছন্ন বিভাগের আওতায় ২ হাজার ৪’শ ৬১টি পরিবার সদস্য সেবকের দায়িত্ব পালন করেন। প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে প্রায় ১৩’শ ৯টি পরিবারের আবাসন করা হবে। এ প্রকল্পের অধীনে নগরীর ফিরিঙ্গিবাজার এলাকায় ৪টি, দক্ষিণ আগ্রাবাদ এলাকায় ২টি এবং সাগরিকায় ১টি ভবন নির্মাণ করা হবে। ১৪ তলা বিশিষ্ট প্রতিটি ভবনের প্রত্যেকটিতে ১’শ ৮৭টি করে ফ্ল্যাট তৈরি করা হবে। প্রতি ফ্ল্যাটে বেডরুম, টয়লেট, কিচেন, বারান্দা, ইউনিট এরিয়া ও লবি রাখা হবে। পাশাপাশি প্রতি ভবনে সিঁড়ি, ফায়ার ফাইটিং ব্যবস্থা রাখা হবে। প্রতি ভবনে থাকবে অত্যাধুনিক লিফটের ব্যবস্থা। প্রাথমিকভাবে প্রকল্প বাস্তবায়নের ব্যয় ধরা হয়েছে ২৩১ কোটি ৪২ লাখ টাকা। একটি আধুনিক ফ্ল্যাটে যেসব সুযোগ-সুবিধা থাকা দরকার সব সুবিধাই
এখানে রাখা হবে। পদ অনুযায়ী জেষ্ঠ্যতার ভিত্তিতে কর্মীদেরকে ফ্ল্যাট বরাদ্দ দেয়া হবে। যতদিন কর্মীরা চাকরিতে বহাল থাকবেন ততদিন ফ্ল্যাট ব্যবহার করতে পারবেন। চসিক সূত্রটি আরও জানায়, চলতি বছরের জুলাই মাসেই এই প্রকল্পের কাজ শুরু হওয়ার কথা ছিল। তবে অনুষ্ঠিত একেনের সভায় অনুমোদনের পর নভেম্বর-ডিসেম্বর মাসে প্রকল্পের কাজ শুরু হতে পারে বলে জানায়। আগামী ২০২০ সালের ৩০ জুনের মধ্যে প্রকল্পটি সম্পন্ন করার মেয়াদ নির্ধারণ করা হয়েছে। এ বিষয়ে চসিকের প্রধান নির্বাহী মো. সামসুদ্দোহা বলেন, রোববার একেনেকে প্রকল্পটি অনুমোদন পেয়েছে। আরও ৯টি প্রকল্পের সাথে আমাদের পরিচ্ছন্ন কর্মী নিবাস প্রকল্পটি অনুমোদিত হয়। প্রকল্পের অনুমোদনের পর একটি রেজুলেশনের চিঠি আমাদের হাতে আসবে। এটি আসলে আমরা প্রকল্পটির টেন্ডার আহŸান করবো।