পূর্ব জেরুজালেমে ইসরায়েলি বাহিনীর গুলিতে ফিলিস্তিনি নিহত

18

অবরুদ্ধ পূর্ব জেরুজালেমের দামেস্ক গেটের বাইরে ইসরায়েলি বাহিনীর গুলিতে এক ফিলিস্তিনি প্রাণ হারিয়েছেন। ইসরায়েলি বাহিনীর দাবি, ছুরিকাঘাত করার চেষ্টা করেছিলেন ওই ফিলিস্তিনি। মধ্যপ্রাচের সংবাদ পর্যবেক্ষণের ব্রিটিশ ওয়েবসাইট মিডল ইস্ট মনিটরের এক প্রতিবেদন থেকে এই তথ্য জানা যায়।
গত বছর ৬ ডিসেম্বর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানীর স্বীকৃতি দেওয়ার পর থেকেই ফিলিস্তিনিরা প্রতিবাদ করে আসছেন। বিভিন্ন স্থানে ইসরায়েলের সেনাদের সঙ্গে সংঘর্ষে লিপ্ত হচ্ছেন। এখন পর্যন্ত অনেক মানুষ নিহত হয়েছেন। আর ১৯৪৮ সালে ফিলিস্তিনি ভূমি দখল করে প্রতিষ্ঠিত হয় ইসরায়েল রাষ্ট্র।
নিজেদের মাতৃভূমির দখল ঠেকাতে বিক্ষোভে নামলে ১৯৭৬ সালের ৩০ মার্চ ছয় ফিলিস্তিনিকে গুলি করে হত্যা করে ইসরায়েলি সেনারা। তারপর থেকে প্রতিবছর ৩০ মার্চ ‘ভূমি দিবস’ পালন করে আসছে ফিলিস্তিনিরা। এই বছর গ্রেট রিটার্ন অব মার্চ নামে ৩০ মার্চ থেকে ছয় সপ্তাহের বিক্ষোভ শুরু করলে ইসরায়েলি সেনারা নির্বিচার গুলি চালায়।
এবারের বিক্ষোভে শত শত মানুষ নিহত হলে প্রতি শুক্রবার বিক্ষোভ অব্যাহত রেখেছে ফিলিস্তিনিরা।
মঙ্গলবার ২৬ বছর বয়সী ওই ফিলিস্তিনিকে গুলি করে ইসরায়েল। এরপর পুলিশ ওই এলাকা বন্ধ করে দেয়। ইসরায়েলি এক মুখপাত্র দাবি করেন, ওই সময় ফিলিস্তিনি ব্যক্তি অবৈধভাবে অবস্থান করছিলো। ফিলিস্তিনি প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, তারা একজন তরুণকে পুলিশের ধাওয়া থেকে পালাতে দেখছিলো।