১৮তম মৃত্যুবার্ষিকীতে খাবার বিতরণকালে মামুনুর রশিদ

পুলক বিশ্বাস ছিলেন প্রগতিশীল ছাত্ররাজনীতির ধারক-বাহক

109

জামায়াত-শিবিরের সন্ত্রাসীদের ব্রাশ ফায়ারে নিহত ওমরগনি এমইএস বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ ছাত্রলীগ নেতা পুলক বিশ্বাসের ১৮তম মৃত্যুবাষির্কী যথাযথ ধমীয় মযার্দায় প্রয়াত পুলক স্মৃতি সংসদ এর উদ্যোগে গতকাল শুক্রবার সকাল থেকে গোলপাহাড় মহাশ্মশান মন্দিরে দিনব্যাপী আচার-অনুষ্ঠান ও বিশেষ প্রার্থনার মাধ্যমে পালন করা হয়। পরে স্মরণসভা ও পূজার্থীদের মাঝে খাবার বিতরণ কমসূর্চীতে প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগ নেতা ও আওয়ামী এক্স-কাউন্সিলর ফোরামের সাধারণ সম্পাদক মামুনুর রশীদ মামুন।
তিনি সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে বলেন, ছাত্রলীগ নেতা পুলক বিশ্বাস প্রগতিশীল ছাত্ররাজনীতির ধারক-বাহক ছিল। পুলক এর মত ছাত্রলীগ নেতা এখন বিরল। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নেতৃত্বে বাংলাদেশকে স¤প্রদায়িক ও সন্ত্রাসমুক্ত করতে গিয়ে জামায়াত শিবিরের টার্গেটে পরিণত হয়। আজ থেকে আটার বছর আগে শুলকবহরে বাসায় ঘুমন্ত অবস্থায় জামায়াত-শিবির সন্ত্রাসীরা ব্রাশ ফায়ার করে নির্মমভাবে হত্যা করে। এখনো হত্যার বিচার হয়নি। এখন জামায়াত-শিবির এর সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করে বিচার এর মুখোমুখি করার উপযুক্ত সময়। পরে আওয়ামী লীগ নেতা মামুনুর রশীদ মামুন পূজার্থীদের মাঝে প্রসাদ ও খাবার বিতরণ করেন। এতে নাসিরাবাদ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অহিদ চৌধুরী মুক্তি, গোলপাহাড় মহাশ্মশান মন্দির পরিচালনা কমিটির সভাপতি হরিপদ দে সাধারণ সম্পাদক মাইকেল দে, যুগ্ম সম্পাদক কাজল কান্তি দেব, পুলক স্মৃতি সংসদ এর সভাপতি বিশ্বনাথ দাশ, সাধারণ সম্পাদক ওমর খৈয়ম তৈয়ব, যুবলীগ নেতা শেখ বশির আহম্মদ, হাজী মো. ইব্রাহিম, রফিকুল ইসলাম, আব্দুল হান্নান, নুরুল ইসলাম রানা, কাজী মামুন, মুনমুন দত্ত মুন্না, অমল কৃষ্ণ নাথ টুটুল, নজরুল ইসলাম, ফরিদুল আলম, সুমেন চক্রবর্ত্তী, রাজীব চৌধুরী, আরিফুর রহমান সোহাগ, আফাজ উদ্দীন আবছার, মিহির দে, রুবেল দে, চন্দন মহাজন, শফিকুল ইসলাম আবির ও ওমরগনি এমইএস বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি হাবিবুর রহমান তারেক, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সদস্য আলী রেজা পিন্টু প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি