পুঁজিবাজারে সূচকের বড় পতন বিনিয়োগকারীদের বিক্ষোভ

13

টানা সাত কার্যদিবস পতনের ধারায় রয়েছে দেশের পুঁজিবাজার। এর মধ্যে সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবস সোমবার বড় পতন হয়েছে। এদিন দেশের প্রধান বাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক ৮৮ পয়েন্ট এবং চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক কমেছে ২৬১ পয়েন্ট। ডিএসই ও সিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। এদিকে টানা পতনের প্রতিবাদে ডিএসইর সামনে বিক্ষোভ করেছেন সাধারণ বিনিয়োগকারীরা। বিক্ষোভ থেকে বিনিয়োগকারীরা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) চেয়ারম্যানের পদত্যাগ দাবি করেছেন। বাংলাদেশ পুঁজিবাজার বিনিয়োগকারী ঐক্য পরিষদের ব্যানারে এই বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়। বিক্ষোভে বিনিয়োগকারীরা বলেন, চলতি বছরের শুরু থেকে এখন পর্যন্ত পুঁজিবাজারে পতন অব্যাহত রয়েছে। শুরু থেকেই আমরা বাজারের পতন ঠেকাতে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করে আসছি। কিন্তু এতেও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কোনো ভূমিকা দেখা যাচ্ছে না। কেউই আমাদের দিকে নজর দিচ্ছে না। বাজারে এই রকম টানা পতন চলতে থাকলে পুঁজি হারিয়ে রাস্তায় বসতে হবে।
বাজার বিশ্লেষণে দেখা গেছে, সোমবার ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৮৮ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ৫ হাজার ৯১ পয়েন্টে। ডিএসইর অপর দুই সূচকের মধ্যে শরিয়াহ সূচক ২৪ পয়েন্ট ও ডিএসই-৩০ সূচক ৩৫ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ১১৬৬ ও ১৮১৮ পয়েন্টে। ডিএসইতে এদিন ৩০৬ কোটি ৬ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। যা আগের দিনের চেয়ে ৪৮ কোটি টাকা কম। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৩৫৪ কোটি টাকার। ডিএসইতে ৩৫২টি প্রতিষ্ঠান শেয়ার ও ইউনিট লেনদেনে অংশ নিয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৩০৩টির শেয়ার ও ইউনিট দর কমেছে, বেড়েছে ৩৭টির এবং ১২টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর অপরিবর্তিত রয়েছে।
টাকার অংকে ডিএসইতে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হওয়া ১০ শীর্ষ প্রতিষ্ঠান হলো- গ্রামীণফোন, মুন্নু সিরামিক, ফরচুন সুজ, স্কয়ার ফার্মা, ইউনাইটেড পাওয়ার, জেএমআই সিরিঞ্জ, ফেডারেল ইন্স্যুরেন্স, ন্যাশনাল লাইফ ইন্স্যুরেন্স, রানার অটোমোবাইল এবং সিঙ্গার বিডি। অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই এদিন ২৬১ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৫ হাজার ৬১৯ পয়েন্টে। এদিন সিএসইতে হাত বদল হওয়া ২৭৮টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শেয়ার দর বেড়েছে ৪০টির, কমেছে ২২০টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১৮টির দর। এ বাজারে এদিন ১৪ কোটি ৪০ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। যা আগের দিনের চেয়ে ৩ কোটি টাকা বেশি। আগের দিন সিএসইতে লেনদেন হয়েছিল ১১ কোটি টাকার।