চসিকের ৪৬তম সাধারণ সভায় সিদ্ধান্ত

পিসি রোড বঙ্গবন্ধু ও এক্সেস রোড মহিউদ্দিন চৌধুরীর নামে হচ্ছে

নিজস্ব প্রতিবেদক

32

নগরীর পোর্ট কানেক্টিং (পিসি) সড়কের বড়পুল জংশনে ড্রেন সোজা করতে গিয়ে বিবাধে জড়িয়ে পড়েছিল চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন ও জাতীয় গৃহায়ণ কর্তৃপক্ষ। এমনকি গৃহায়ণের এক প্রকৌশলীকে ‘থাপ্পড়’ মারার অভিযোগ তুলেছিল মেয়রের বিরুদ্ধে। সেই ইস্যুতেই উত্তাল হয়ে উঠেছিল বন্দরনগরী। পরে প্রমাণ হয় জায়গাটির মালিক গৃহায়ণ কর্তৃপক্ষ নয় সিটি কর্পোরেশন। এখন সেই জংশনে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সিটি কর্পোরেশন।
এছাড়া পোর্ট কানেক্টিং রোড জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং আগ্রাবাদ এক্সেস রোড সাবেক মেয়র এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর নামে করার সিদ্ধান্ত হয়। গতকাল দুপুরে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন (চসিক) মিলনায়তনে চসিক’র ৫ম নির্বাচিত পরিষদের ৪৬তম সাধারণ সভায় সর্বসম্মতিক্রমে এসব সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।
সভায় সভাপতিত্ব করেন সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। একই সভায় অলংকার মোড় শেখ রাসেল এবং লালদীঘির ময়দানকে ৬ দফা চত্বর হিসেবে নামকরণের সিদ্ধান্তও নেয়া হয়।
সিটি কর্পোরেশনের জনসংযোগ শাখা জানিয়েছে, এই সিদ্ধান্তা অনুযায়ি চসিক সাধারণ সভায় নগরীর অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ সড়কের ৫ দশমিক ৭ কি.মি. দীর্ঘ এবং ১২০ ফুট প্রশস্থ নিমতলা থেকে অলংকার মোড় পর্যন্ত পোর্ট কানেকটিং জাতির জনক বঙ্গবন্ধু সড়ক এবং ২ দশমিক ২ কি.মি. দীর্ঘ ১২০ ফুট প্রশস্থ বাদামতলী থেকে বড়পুল পর্যন্ত আগ্রাবাদ এক্সেস রোড এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর নামে করা হয়।
সভাপতির বক্তব্যে সিটি মেয়র বলেন, পোর্ট কানেকটিং রোড বন্দরের সাথে সারা দেশকে যুক্ত করেছে। এই রোড বন্দরের অর্থনীতির মুল চালিকা শক্তি। আর চট্টগ্রাম বন্দর হলো দেশের অর্থনীতির প্রাণ। তাই সড়কটি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে করার উদ্যোগ নিয়েছে চসিক। অপরদিকে নগরীর আগ্রাবাদ এক্সসেস রোডটি প্রয়াত জননেতা তিন তিন বারের সফল মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর নামে করার কথা উল্লেখ করে সিটি মেয়র বলেন, তিনি ছিলেন আমাদের সকলের অভিভাবক। চট্টগ্রাম নগর শিক্ষা, স্বাস্থ্য, পরিচ্ছন্নতা ও নগর অবকাঠামোগত উন্নয়নসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে তাঁর অনেক অবদান রয়েছে। তিনি ছিলেন একজন খাঁটি চট্টল প্রেমিক মানুষ। তিনি চট্টগ্রামের মাটি ও মানুষকে মনে-প্রাণে ভালবাসতেন। এই প্রয়াত নেতা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এবং চট্টগ্রামবাসীর জন্য সব সময় নিজকে উজাড় করে দিয়ে গেছেন।
সভায় নাগরিক সেবার মান বৃদ্ধির লক্ষ্যে আজ মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১০ টায় ১নং ওয়ার্ড থেকে ৬ নং ওয়ার্ডকে নিয়ে অনুষ্ঠিত হবে ওয়ার্ড ভিত্তিক ধারাবাহিক বৈঠক।
সভায় সিটি মেয়র নগরীর জনদুর্ভোগ সহনীয় পর্যায়ে রাখার নিমিত্তে ওয়ার্ড ভিত্তিক চসিকের দায়িত্ব প্রাপ্ত প্রকৌশলীদের সাথে চট্টগ্রাম ওয়াসা কর্তৃক নিয়োজিত ঠিকাদার ও প্রকৌশলীদের সাথে সমন্বয় সাধনের উপর গুরুত্বারোপ করেন।
সভায় চসিক প্যানেল মেয়র, কাউন্সিলর, সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর, চসিক প্রধান নিবার্হী কর্মকর্তা মোহাম্মদ সামশুদ্দোহা, প্রধান প্রকৌশলী লে. কর্নেল মহিউদ্দিন আহমদ, প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা মুফিদুল আলমসহ নগরীর সরকারি ও স্বায়ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠানের পদস্থ কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন। সভায় সঞ্চলনায় ছিলেন চসিক সচিব আবু সাহেদ চৌধুরী।