পাকিস্তানের রান পাহাড় টপকে ইংল্যান্ডের জয়

6

নিজেদের ঘরের মাঠে বিশ্বকাপ। আসন্ন টুর্নামেন্টে ইংল্যান্ড কেমন করবে তার ঝলক দেখা গেলো গতকাল। পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজের তৃতীয় ওয়ানডেতে বিশাল রানের পাহাড় টপকে জিতেছে ইংলিশরা। ইমাম উল হকের ১৫১ রানের আধিপত্য বিস্তার করা ইংনিংসও জেতাতে পারেনি পাকিস্তানকে। সফরকারী ইংল্যান্ডের কাছে হেরে গেছে ৬ উইকেটে! একই সঙ্গে এই জয় ইংলিশদের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান তাড়া করে পাওয়া জয়! ব্রিস্টলে ইংল্যান্ড টস জিতলেও ব্যাটিংয়ে পাঠিয়েছিলো পাকিস্তানকে। ২৭ রানে ২ উইকেট তুলে নিয়ে ইংলিশরা ম্যাচের সূচনায় দারুণ কিছুর ইঙ্গিত দিলেও তা ধীরে ধীরে ম্লান হয়ে দাঁড়ায় ওপেনার ইমাম উল হকের একক আধিপত্যে। ১৬২ রানে ৪ উইকেট পতনের পর পরবর্তী উইকেটেই মূল জুটিটা গড়েন ইমাম উল হক ও আসিফ আলী। আসিফ ৫২ রানে ফিরে গেলেও আগ্রাসন থামানো যায়নি ইমামের। শেষ পর্যন্ত ১৩১ বলে ১৫১ রান করা ইমামকে থামান কারান। ততক্ষণে অবশ্য স্কোরবোর্ডে জমা হয়েছে ৬ উইকেটে ৩১০ রান! তার ইনিংসে ছিলো ১৬টি চার ও ১টি ছয়। শেষ দিকে ৯ উইকেট হারানো পাকিস্তানের স্কোর ৩৫৮ রানে পৌঁছায় হাসান আলীর মিনি ঝড়ে। ইংল্যান্ডের পক্ষে ৬৭ রানে ৪ উইকেট নিয়ে সেরা ক্রিস ওকস।
এর জবাবে ইংলিশরা ওপেনিং জুটিতে ছিলো আরও বিধ্বংসী রূপে। তাতেই ১৭.৩ ওভারে চলে আসে ১৫৯ রান! জেসনের স্কোর ছিলো ৫৫ বলে ৭৬ রান। ৮টি চার ও ৪টি ছয়ে সাজানো ছিলো তার ইনিংস।
৯৩ বলে ১২৮ রানে বিদায় নেওয়া বেয়ারস্টোর ইনিংসে ছিলো ১৫টি চার ও ৫টি ছয়। দুই ওপেনারের মঞ্চ গড়ে দেওয়া ইনিংসের পর জো রুট ৪৩, বেন স্টোকস ৩৭ রান করে কার্যকরী ভূমিকা রাখেন মাঝের দিকে। ৪৪.৫ ওভারে ৪ উইকেট হারানো ইংলিশদের ম্যাচের ইতি টেনে দিতে ভূমিকা রাখেন মঈন আলী ও অধিনায়ক এউইন মরগান। মঈন ৩৬ বলে অপরাজিত ছিলেন ৪৬ রানে। মরগান ১২ বলে ১৭ রানে। ম্যাচসেরা ওপেনার জনি বেয়ারস্টো। এই জয়ে ৫ ম্যাচের সিরিজে ২-০ তে এগিয়ে গেলো ইংল্যান্ড। একই সঙ্গে ঘরের মাঠে জিতলো টানা ১৫টি ম্যাচ!