পরীক্ষার অনুমতি না পেয়ে ক্ষোভ চবি সংস্কৃত বিভাগ সভাপতির কক্ষে শিক্ষার্থীদের তালা

চবি প্রতিনিধি

24

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) সংস্কৃত বিভাগে দ্বিতীয় বর্ষের পরীক্ষায় অনুমতি না পেয়ে বিভাগের সভাপতির কক্ষসহ বেশ কয়েকটি কক্ষে তালা ঝুলিয়েছে শিক্ষার্থীরা। গতকাল বুধবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এসময় বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. সুপ্তিকণা মজুমদারের কক্ষে তালা ঝুেিল তাঁকে প্রায় দেড়ঘণ্টা অবরুদ্ধ করে রাখা হয়।
বিশ্ববিদ্যালয় সূত্র জানায়, বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের সাত শিক্ষার্থী ক্লাসে উপস্থিতির হার কম থাকায় পরীক্ষা দেয়ার অনুমতি পায়নি। পরবর্তীতে প্রক্টরের সুপারিশে বিভাগীয় সভাপতি বরাবর আবেদন করে ওই সাত শিক্ষার্থী। কিন্তু বিভাগের একাডেমিক কমিটি পরীক্ষার অনুমতি না দিয়ে আবেদনটি বাতিল করে দেয়। পরীক্ষা শুরুর প্রথম দিন গতকাল ১১টা থেকে ২০১৭ সালের দ্বিতীয় বর্ষের ২০১নং কোর্সের
পরীক্ষা ছিল। কিন্তু পরীক্ষা শুরুর আগেই বিভাগের সভাপতি ও পরীক্ষার হলসহ বেশ কয়েকটি কক্ষে তালা ঝুলিয়ে দেয় অনুমতি না পাওয়া পরীক্ষার্থীরা।
শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, চাকরিজীবী এক শিক্ষার্থী ক্লাস না করেও পরীক্ষার অনুমতি পায়। কিন্তু কম উপস্থিতি থাকায় সাত শিক্ষার্থীকে পরীক্ষায় বসতে দেয়া হচ্ছে না। প্রক্টরের লিখিত সুপারিশেও অনুমতি দেয়া হচ্ছে না। কাউকে দেয়া হবে, কাউকে দেয়া হবে না; এক বিভাগে দুই নীতি চলতে পারে না।
জানতে চাইলে সংস্কৃত বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. সুপ্তিকণা মজুমদার বলেন, ‘সাত শিক্ষার্থীর উপস্থিতির হার শতকরা ৩০ ভাগেরও কম ছিল। তারা দুইবার আবেদন করলেও একাডেমিক কমিটিতে তা বাতিল হয়ে যায়। আর তারা যে অভিযোগ দিচ্ছে তা সঠিক নয়। আমার কোর্সে চাকরিজীবী ওই শিক্ষার্থীর উপস্থিতির হার শূন্য ছিল।’ একাডেমিক কমিটির জরুরি সভায় পরীক্ষার বিষয়ে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে তিনি জানান।
বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর লিটন মিত্র বলেন, ‘খবর পেয়ে একজন সহকারী প্রক্টর গিয়ে শিক্ষার্থীদের সাথে কথা বলেন। পরে তারা তালা খুলে দেয়। বিষয়টি নিয়ে আমরা সভাপতির সাথে কথা বলছি।’