ভবনে রং করার সময় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট

পরিবারের হাল ধরা হলো না মহিউদ্দিনের

আবু তালেব, হাটহাজারী

28

হতদরিদ্র পরিবারের দুই ভাইয়ের মধ্যে ছোট মো. মহিউদ্দিন (২০)। পেশায় একজন রং মিস্ত্রি। তার পিতা হাটহাজারী উপজেলার চিকনদন্ডী ইউনিয়নের ফকির বাড়ির মো. জামাল উদ্দিন। তিনি পেশায় একজন রিকশাচালক।
লেখাপড়ার প্রতি মহিউদ্দিনের আগ্রহ থাকলেও পরিবারের দারিদ্রতার কারণে তা হয়ে ওঠেনি। পরিবারের অভাব পূরণ করতে গিয়ে সে রং করার কাজ শুরু করে। অল্প দিনেই এলাকার ভালো রং মিস্ত্রি হিসেবে তার সুনাম ছড়িয়ে পড়ে।
গতকাল শুক্রবার সকালে উপজেলার চিকনদন্ডী ইউনিয়নের চৌধুরী হাটের পূর্বে দাতারাম চৌধুরী বাড়ির বিধান বাবুর একটি ভবনে রং করার কাজ করছিলেন মহিউদ্দিন। এ সময় ১১ হাজার ভোল্টের বৈদ্যুতিক তারের সাথে স্পৃষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারান তিনি।
মহিউদ্দিনের বড় ভাই নূর উদ্দিন জানান, পরিবারের অভাব দূর করতে পড়ালেখা বাদ দিয়ে রং মিস্ত্রির কাজ শুরু করেছিল মহিউদ্দিন। সকাল সাড়ে ৯টায় এ দুর্ঘটনায় প্রাণ হারায় সে। এ সময় আমার ভাই মহিউদ্দিনের সাথে তার সহকারী মো. হাবিব (২১) আহত হয়।
এদিকে ঘটনার খবর পেয়ে হাটহাজারী ফায়ার সার্ভিসের উদ্ধারকর্মীরা দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে ১১ হাজার ভোল্টের বৈদ্যুতিক তারের সাথে ঝুলে থাকা রং মিস্ত্রি মহিউদ্দিনের লাশ উদ্ধার করে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে। ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা আহতাবস্থায় মো. হাবিবকে উদ্ধার করে স্থানীয় একটি হাসপাতালে নিয়ে যায়।
হাটহাজারী মডেল থানার উপ-পরিদর্শক অজয় কুমার পাল বলেন, এ ঘটনায় নিহতের বড় ভাই একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করেছে। লাশটি ময়না তদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।