পটিয়ায় শ্রীমাই খালে বালু উত্তোলন সাময়িক বন্ধ থাকবে

পটিয়া প্রতিনিধি

35

পটিয়ায় শ্রীমাই খালে বালু উওোলন সাময়িক বন্ধ রাখতে নির্দেশ দিয়েছেন পটিয়া আসনের এমপি ও জাতীয় সংসদের হুইপ সামশুল হক চৌধুরী। গতকাল শনিবার তিনি সরেজমিন পরিদর্শনকালে ইজারার শর্ত ভেঙে বালি তোলার প্রমাণ পায়। এরপর তিনি এসিল্যান্ডকে খালের সীমানা চিহ্নিত করে দেয়ার নির্দেশ দেন। শ্রীমাই থেকে বালি দিয়ে কারো বসতভিটা ভরাট করা যাবে না। কয়েকটি সড়কের উন্নয়ন কাজের জন্য বালি নেয়ার কথা বলে যদি কারো জমি ভরাট করা হয় তবে সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ারও নির্দেশ দেন। একই সাথে তিনি বলেন, সীমানা চিহ্নিত না হওয়ায় পর্যন্ত খাল থেকে বালু কাটা যাবে না। ওই সময় স্থানীয় লোকজন হুইপকে জানান, ইজারাদার নয়, একটি সিন্ডিকেট এসব বালু নিয়ে যাচ্ছে। এস্কেবেটর ব্যবহারে বিধিনিষেধ থাকলেও তা মানা হচ্ছে না। শ্রীমাই খাল পরিদর্শনকালে হুইপকে গ্রামবাসী পুনরায় জানান, ইজারাদার ও দখলদাররা শর্ত ভেঙে এস্কেবেটর দিয়ে বালি তোরার পর তা বিভিন্ন ব্যক্তির কাছে বিক্রি করে দিচ্ছেন। গত ৪ নভেম্বর দৈনিক পূর্বদেশে সংবাদ প্রকাশের পর গতকাল তিনি সরেজমিন পরিদর্শন করেন।
উল্লেখ্য, পটিয়ায় শ্রীমাই খালের ইজারাদার ও অপর একটি সিন্ডিকেট শর্ত ভেঙে এস্কেবেটর দিয়ে বালি ও মাটি কটে নেয়ার অভিযোগ উঠে। কেউ প্রতিবাদ করলেই রোষানলে পড়তে হয়। পটিয়া উপজেলা প্রশাসন এসব অনিয়ম আর বালি সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে অভিযান চালিয়ে বালি উত্তোলন বন্ধ ও এস্কেবেটর জব্দ করে। এরপরও গ্রæপগুলো প্রশাসনকে তোয়াক্কা না করে বালি ও মাটি কাটা অব্যাহত রাখে। অবৈধ দখলদাররা রক্তচক্ষু দেখিয়ে ইজারাদরকে বাহুলী এলাকার মধ্যে সীমাবদ্ধ রেখে পুরো খাল দখল করে কোন শর্ত না মেনেই বালু ও মাটি লুট করছে নিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু অবৈধভাবে বালি কাটা থামাতে পারছে উপজেলা প্রশাসন।
সংসদ সদস্য সামশুল হক চৌধুরী সরেজমিন পরিদর্শন করতে গিয়ে বালু উত্তোলন সাময়িক বন্ধ রাখার জন্য সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দিয়েছেন। পটিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও), এসিল্যান্ড, সার্ভেয়ার, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে পটিয়ার শ্রীমাই খালটি চিহ্নিত করার পর সেখান থেকে ইজারাদারকে বালু উত্তোলনের নির্দেশ দেন। শ্রীমাই খাল পরিদর্শনকালে হুইপের সঙ্গে ছিলেন পটিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরী, পটিয়া পৌরসভার মেয়র অধ্যাপক হারুনুর রশিদ, সহকারী কমিশনার (ভুমি) সাব্বির রহমান সানি, পটিয়া থানার ওসি বোরহান উদ্দিন, পটিয়া উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ডা. তিমির বরণ চৌধুরী, পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ প্রকৌশলী আকরাম খান, বিজন চক্রবর্ত্তী, বি.এম জসিম, হাবিবুল হক চৌধুরী, এম এজাজ চৌধুরী,পৌর সভা আ.লীগ সভাপতি আলমগীর আলম ও সাধারণ সম্পাদক এম এন নাছির প্রমুখ।
পটিয়ার সহকারী কমিশনার (ভূমি) সাব্বির রহমান সানি জানিয়েছেন, সাময়িক বালু উত্তোলন বন্ধ রাখার জন্য হুইপ সামশুল হক চৌধুরী নির্দেশ দিয়েছেন।