তারুণ্যের উচ্ছ্বাসের যুগপূর্তিতে সেমিনার

নিরলস চর্চার মধ্যে না থাকলে প্রকৃত শিল্পী হওয়া যায় না

7

তারুণ্যের উচ্ছ্বাসের বছরব্যাপী যুগপূর্তি অনুষ্ঠানমালার পঞ্চম আয়োজন ‘আবৃত্তিশিল্পে পেশাদারিত্ব : সংকট ও সম্ভাবনা’ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার বিকাল ৩ টায় জেলা শিল্পকলা একাডেমির গ্যালারী মিলনায়তনে সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন আবৃত্তিশিল্পী ও সংগঠক ফারুক তাহের। তারুণ্যের উচ্ছ্বাস সভাপতি ভাগ্যধন বড়ুয়ার সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক মো. মুজাহিদুল ইসলামের সঞ্চালনায় প্রবন্ধের ওপর আলোচনা করেন প্রথম আলোর সহকারী বার্তা সম্পাদক কবি ওমর কায়সার, নাট্যজন ও আবৃত্তিশিল্পী শান্তনু বিশ্বাস, কবি ও সাংবাদিক কামরুল হাসান বাদল, সম্মিলিত আবৃত্তি জোটের সভাপতি অঞ্চল চৌধুরী, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের নাট্যকলা বিভাগের অধ্যাপক ড. কুন্তল বড়ুয়া এবং আবৃত্তিশিল্পী মিলি চৌধুরী।
সেমিনারে আবৃত্তিশিল্প নিয়ে বক্তারা বলেন, একটা সময়ে আবৃত্তি চর্চা ছিল শৌখিন কিংবা আধা শৌখিন সংস্কৃতি চর্চা। বড় কোন সাংস্কৃতিক আয়োজনে গান কিংবা নৃত্যের ফাঁকে কিয়ৎ বিরতকালে আবৃত্তিকার সুযোগ পেতেন পর্দার অন্তরালে থেকে আবৃত্তি করতে। ধীরে ধীরে শিক্ষিত-আধাশিক্ষিত ও মধ্যবিত্ত শ্রেণির কর্ণকুহরে আবৃত্তিকারের কণ্ঠমাধূর্য্য আলোড়ন সৃষ্টি করতে থাকে। সমাজের একটা শ্রেণির কাছে তা দিন দিন প্রিয় হয়ে ওঠতে থাকে। ফলে পর্দার অন্তরালে বা মঞ্চের হালকা অন্ধকার স্থান থেকে অচিরেই আবৃত্তিকারের স্থান হয়ে যায় জনসমক্ষে ও মঞ্চের আলোকোজ্জ্বল পরিবেশে। এভাবে আবৃত্তি চর্চার প্রসারতা যেমন বাড়তে লাগল, তেমনি আলাদা শিল্প হিসেবে তা শ্রোতামন্ডলীর কাছে গ্রহণযোগ্য হয়ে উঠতে আর বেশি সময় লাগল না। নামী আবৃত্তিশিল্পীরা সম্মানীর বিনিময়ে মঞ্চের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে এবং বেতার-টেলিভিশনে আবৃত্তি করার সম্মান অর্জন করেন। এতে আবৃত্তির একটি পৃথক শিল্পমূল্য তৈরি হয়েছে।
বক্তারা আবৃত্তিশিল্পীদের সমালোচনা করে বলেন, তরুণ আবৃত্তিশিল্পীদের আরো বেশি পরিশ্রমী হতে হবে। শ্রম-সাধনা করে যেতে হবে। নিরলস চর্চার মধ্যে না থাকলে কখনোই প্রকৃত শিল্পী হওয়া যায়না। আবৃত্তিশিল্পী শম্ভু মিত্রকেও আবৃত্তি চর্চার কারণে একসময় বাসা ছেড়ে দিতে হয়েছিল। পেশাদারিত্ব মানেই বাণিজ্য নয়। বছরব্যাপী যুগপূর্তি অনুষ্ঠানমালা প্রসঙ্গে তারুণ্যের উচ্ছ্বাস সাধারণ সম্পাদক আবৃত্তিশিল্পী মো. মুজাহিদুল ইসলাম বলেন, প্রতিষ্ঠার পর থেকে কবিতার বিশুদ্ধ কথামালাকে শক্তি করে বিগত একযুগ তারুণ্যের উচ্ছ্বাস সমৃদ্ধ হয়েছে নানা আয়োজন উৎসবে অভিজ্ঞতায়। তারুণ্যের উচ্ছ্বাস প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় দেশের গণতান্ত্রিক ও প্রগতিশীল সাংস্কৃতিক আন্দোলনে মঞ্চে ও প্রয়োজনে রাজপথে সোচ্চার ছিল। বিজ্ঞপ্তি