নিরবচ্ছিন্ন গ্যাস সরবরাহের দাবিতে মানববন্ধন

নিরবচ্ছিন্ন গ্যাস সরবরাহ না হলে আবাসন বিপর্যয় ঠেকানো যাবে না

5

ইসলামিক ফ্রন্টের কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান এডভোকেট আবু নাছের তালুকদার বলেছেন, চট্টগ্রামে গ্যাস সরবরাহের অপ্রতুলতায় আবাসিক গ্রাহকদের ভোগান্তি চরম পর্যায়ে পৌঁছেছে। গ্যাসের অভাবে অনেকের ঘরে চুলা জ্বলছে না।
যে কারণে রান্না-বান্নার বিকল্প হিসেবে অনেকেই হোটেল নিভর্রশীল হয়ে পড়েছে। দেশের ২৬টি গ্যাস ক্ষেত্র থেকে দৈনিক প্রায় ৩ হাজার মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস উত্তোলন করা হলেও এককভাবে ২১শ মিলিয়ন ঘনফুট ব্যবহৃত হচ্ছে শুধু রাজধানীতে। চট্টগ্রাম, সিলেট, কুমিল্লাসহ দেশের অন্যান্য স্থানে বাকী গ্যাস সরবরাহ করা হয়। যা চাহিদার তুলনায় অপ্রতুল। তাই বিশেষত চট্টগ্রামে নিরবচ্ছিন্ন গ্যাস সরবরাহ নিশ্চিত করা না গেলে সাধারণ গ্রাহকদের ভোগান্তি তথা আবাসিক খাতের বিপর্যয় ঠেকানো যাবে না। গত বুধবার জামালখানস্থ চট্টগ্রাম প্রেক্লাব চত্বরে ইসলামিক ফ্রন্ট মহানগরের উদ্যোগে চট্টগ্রামে নিরবচ্ছিন্ন গ্যাস সরাবরাহ নিশ্চিতকরণের দাবিতে অনুষ্ঠিত মানবন্ধনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন। অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে এইচ. এম. মুজিবুল হক শুক্কুর বলেছেন, গ্যাস সেক্টরে নৈরাজ্য দৃশ্যমান থাকলেও কর্তৃপক্ষ নতুন আবাসিক সংযোগের নামে গ্রাহক থেকে ডিমান্ড নোটের টাকা গ্রহণ করছেন। টাকা জমা দেয়ার পরও সংযোগ না পেয়ে ভোক্তা সাধারণের মনে ক্ষোভ জন্মেছে। উপরন্তু সংযোগ না পাওয়ার কারণে চট্টগ্রামের আবাসন খাত বিপর্যয়ের সম্মুখীন।
তাই গ্রাহক হয়রানি বন্ধ এবং আবাসন খাতের সুরক্ষায় ইতিবাচক পদক্ষেপে এগিয়ে আসার জন্য তিনি সংশ্লিষ্ট র্কর্তৃপক্ষের নিকট জোর দাবি জানান। তিনি আরও বলেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মাধ্যমে নির্বাচিত সরকার আসতে না আসতেই ৫% পানির মূল্য বৃদ্ধি জনগণের মনে ক্ষোভের সৃষ্টি করবে। মাওলানা হাসমত আলী তাহেরীর পরিচালনায় এতে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মহানগর ইসলামিক ফ্রন্টের সাধারণ সম্পাদক এম. মহিউল আলম চৌধুরী, সহ-সাধারণ সম্পাদক ওয়াহেদ মুরাদ, মাওলানা মহিউদ্দীন তাহেরী, নূর মুহাম্মদ ছিদ্দিকী, কাজী সুলতান আহমদ, ইলিয়াছ খান ইমু, জানে আলম নিজামী, দিদারুল ইসলাম, হাবিবুর রহমান, ইউসুফ কবির, মুনির উদ্দীন, শিহাব উদ্দীন, রাশেদ, ইমরান আলী প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি