নকল ঠেকাতে শিক্ষার্থীদের মাথা কার্টুনে ঢেকে পরীক্ষা

20

ভারতের একটি কলেজে নকল ঠেকাতে শিক্ষার্থীদের মাথায় কার্টুন পরিয়ে পরীক্ষা নেওয়া হয়েছে। দক্ষিণ ভারতীয় রাজ্য কর্নাটকের হাভেরির ভগত প্রি-ইউনিভার্সিটি কলেজ কর্তৃপক্ষ এই বিতর্কিত ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। কর্তৃপক্ষ পরে পরীক্ষামূলক এই ব্যবস্থার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেছে। যুক্তরাষ্ট্রের সংবাদমাধ্যম সিএনএন এ খবর জানিয়েছে।
কলেজের ব্যবস্থাপনা কমিটির প্রধান এম বি সতীশ জানান, ১৬ অক্টোবর পরীক্ষামূলকভাবে এই পদ্ধতিতে পরীক্ষা গ্রহণ করা হয়।
পরীক্ষার হলে কার্টুন ঢাকা মাথায় শিক্ষার্থীরা লিখছে, এমন ছবি তুলেছেন বিদ্যালয়টির এক কর্মী। পরে তা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে প্রকাশ করা হলে দ্রুতই তা ভাইরাল হয়ে যায়। আর শুরু হয় সমালোচনা। সমালোচনায় যোগ দেন সরকারি কর্মকর্তারাও। রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী এস সুরেশ কুমার এক টুইটে জানিয়েছেন, বিদ্যালয়ের এই পদ্ধতি অগ্রহণযোগ্য। তিনি আরও লিখেছেন, শুধু শিক্ষার্থীই নয়, যে কারও প্রতি পশুর মতো আচরণ করার অধিকার কারোরই নেই। যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। খবর বাংলানিউজের
ব্যবস্থাপনা কমিটির প্রধান জানিয়েছেন, কর্তৃপক্ষ ঘটনাটি সম্পর্কে লিখিত ব্যাখ্যা দিয়েছে এবং ক্ষমা চেয়েছে। তিনি দাবি করেন, পরীক্ষামূলক পদ্ধতিতে পরীক্ষা নেওয়া ছিল ঐচ্ছিক। কর্তৃপক্ষ আগেই অভিভাবকদের বিষয়টি জানিয়েছে। অভিভাবকের অনুমতি পাওয়া শিক্ষার্থীরাই ওই পদ্ধতিতে পরীক্ষা দেয়। ওই দিন অংশ নেওয়া ৭২ জনের মধ্যে ৫৬ জন কার্টুন দিয়ে মাথা ঢেকে পরীক্ষা দিয়েছে।
সতীশ বলেন, যারা কার্টুন দিয়ে মাথা ঢেকে পরীক্ষা দিয়েছে তারা কোনও অভিযোগ করেনি। কোনও শিক্ষার্থীকে হয়রানি হতে হয়নি। পরীক্ষামূলক পদ্ধতি ছিল ঐচ্ছিক। কেউ অংশগ্রহণ করেছে, কেউ করেনি।
তিনি আরও জানান, শিক্ষার্থীরা মাথা ঢাকার জন্য কার্টুন নিজেরাই এনেছে। ১৫ থেকে ৩০ মিনিট পর তা খুলে ফেলা হয়। পরীক্ষা শুরু হওয়ার এক ঘণ্টার মধ্যেই সবাইকে কার্টুন খুলে নেওয়ার নির্দেশ দেয় কর্তৃপক্ষ।
গত বছর ব্যাপক নকলের কারণে সমালোচনার মুখে পড়েছিল প্রতিষ্ঠানটি।