ধর্না তুলে নিলেন মমতা

17

তিন দিন পর ধর্না প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে কলকাতায় ধর্না প্রত্যাহার করলেও ১৩ এবং ১৪ ফেব্রুয়ারি দিল্লিতে একই কর্মসূচির ঘোষণা দিয়েছেন তিনি। স্থানীয় সময় মঙ্গলবার সন্ধ্যা ছয়টা নাগাদ টিডিপি নেতা চন্দ্রবাবু নাইড়ু এবং তেজস্বী যাদবের সঙ্গে প্রায় এক ঘণ্টার বৈঠকের পর মমতা ধর্না তুলে নেওয়ার ঘোষণা দেন বলে জানায় দৈনিক আনন্দবাজার। এর আগে সকালে ভারতের সুপ্রিম কোর্ট কলকাতার পুলিশ কমিশনার রাজিব কুমারকে আপাতত গ্রেপ্তার না করার সিদ্ধান্ত দেয়। আদালতের ওই রায়কে নিজেদের জয় বলে বর্ণনা করে মমতা বলেন, “আদালতের রায়ে আমাদের জয় হয়েছে। আদালত রাজিব কুমারকে গ্রেপ্তারের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে।”
সারদা ও রোজভ্যালি অর্থ কেলেঙ্কারির ঘটনায় জব্দ করা তথ্যপ্রমাণ ও আলামত ভারতের কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা-সিবিআইকে হস্তান্তর করেননি অভিযোগে গত রোববার কলকাতার লাউডন স্ট্রিটে রাজিবের বাড়িতে হানা দেন সিবিআই কর্মকর্তারা। কলকাতার পুলিশ সিবিআই কর্মকর্তাদের বাড়িতে ঢুকতে না দিয়ে আটক করে থানা নিয়ে যায়, অবশ্য পরে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়। জাতীয় নির্বাচনের মাত্র দুই মাস আগে সিবিআই ও রাজ্য পুলিশের এই বিরোধকে রাজনৈতিক চেহারা দিয়ে রীতিমত তুলকালাম বাঁধিয়ে দেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা। গত তিন দিন ধরে তিনি কলকাতার ধর্মতলার মেট্রো চ্যানেলে অবস্থান নেন এবং সেখান থেকেই সরকার ও দলীয় সব কাজ সারেন। রাজিবকে এখনই গ্রেপ্তার না করার নির্দেশ দিলেও আদালত সারদা ও রোজভ্যালি অর্থ কেলেঙ্কারির ঘটনায় তার হাতে থাকা সব তথ্যপ্রমাণ ও আলামত সিবিআইর কাছে হস্তান্তর করতে বলেছে।