দ্বৈত ভর্তিতে জরিমানা মওকুফের দাবিতে অবস্থান কর্মসূচি

নিজস্ব প্রতিবেদক

63

নগরীর খুলশী ১ নম্বর সড়কে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের চট্টগ্রাম আঞ্চলিক কার্যালয়ের সামনে দ্বৈত ভর্তিতে জরিমানা মওকুফের দাবিতে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা। গতকাল মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে তারা অবস্থান নেন। ওইদিন দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত দ্বৈত ভর্তির ক্ষেত্রে জরিমানা মওকুফের দাবিতে শিক্ষার্থীরা সেখানে অবস্থান করে। এক পর্যায়ে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের আঞ্চলিক পরিচালক অধ্যাপক আবুল কাশেম শিক্ষার্থীদের সাথে দাবির বিষয়ে আলোচনা করেন।
আন্দোলনকারী সাধারণ শিক্ষার্থীদের সমন্বয়ক ইসমাইল নূর বলেন, আমরা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়ম মেনে আবেদন করার পরও আমাদের আগের ভর্তি বাতিল হয়নি। এখন যাদের ভর্তি বাতিল হয়নি তাদের ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা দিতে বলছে। এটা গ্রহণযোগ্য নয়। তাই আমরা জরিমানা বাতিল চেয়ে আন্দোলন করছি। ইসমাইল নূর বলেন, দাবি নিয়ে আমরা আঞ্চলিক পরিচালকের সাথে দেখা করি। তিনি আমাদের বলেছেন নিজ নিজ কলেজের মাধ্যমে আমাদের ভর্তি বাতিলের আবেদন সংক্রান্ত কাগজপত্র জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে পাঠাতে। সাধারণ শিক্ষার্থীদের যাতে বাড়তি জরিমানা দিতে না হয় এবং হয়রানির শিকার হতে না হয় সেই লক্ষ্যে আমরা এখন সেই প্রক্রিয়া অনুসরণ করব।
এ বিষয়ে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের আঞ্চলিক পরিচালক অধ্যাপক আবুল কাশেম বলেন, মঙ্গলবার জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে পত্রিকায় এ সংক্রান্ত একটি বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়েছে। শিক্ষার্থীদের দাবি তারা ভর্তি বাতিলের আবেদন করলেও কলেজ থেকে তা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে পাঠানো হয়নি। তাদের বলেছি কলেজের মাধ্যমে আবেদন সংক্রান্ত কাগজপত্রগুলো জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে পাঠিয়ে দিলে আর জরিমানা দিতে হবে না। আলোচনা শেষে শিক্ষার্থীরা চলে গেছে।
এ বিষয়ে মঙ্গলবার গণমাধ্যমে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে দেওয়া বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, দ্বৈত ভর্তি সম্পূর্ণ আইন বা নিয়ম বহির্ভূত। কোনো শিক্ষার্থী যদি ইতোপূর্বে ভর্তিকৃত বিষয় বাতিল করা মর্মে কলেজের নিকট লিখিত আবেদন করে থাকে, সে সংক্রান্ত তথ্য প্রমাণ বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের নিকট দাখিল করা হলে জরিমানার বিষয়টি পুনঃবিবেচনা করে দেখা হবে।
উল্লেখ্য, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন কলেজগুলোতে স্নাতক (পাস ও সম্মান) এবং স্নাতকোত্তর প্রথম বর্ষে দ্বৈত ভর্তির ক্ষেত্রে জরিমানা মওকুফের দাবিতে ‘জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীবৃন্দ’র ব্যানারে গত দুই সপ্তাহ ধরে বিভিন্ন কর্মসূচি পালিত হচ্ছে।