দ্বিতীয় ম্যাচেও হার বাংলাদেশ ‘এ’ দলের

7

দ্বিতীয় আন-অফিসিয়াল ওয়ানডে ম্যাচেও জয় পায়নি বাংলাদেশ ‘এ’ দল। মোহাম্মদ মিঠুনের নেতৃত্বে খেলতে নামা ইমরুল কায়েস, সাব্বির রহমান, ফরহাদ রেজা, এনামুল হক বিজয়, আবু জায়েদ রাহিদের নিয়ে সাজানো দলটি পাঁচ ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচেও হেরেছে। আফগানিস্তান ‘এ’ দল ৫ বল হাতে রেখে ৪ উইকেটে হারিয়েছে স্বাগতিকদের। ম্যাচ সেরা হন সেঞ্চুরিয়ান আফগান ওপেনার ইব্রাহিম জাদরান।
চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরি স্টেডিয়ামে গতকাল টস হেরে ব্যাটিংয়ে নামে বাংলাদেশ ‘এ’ দল। নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে স্বাগতিকরা তোলে ২৭৮ রান। জবাবে, ৪৯.১ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে জয়ের বন্দরে পৌঁছায় সফরকারীরা। পাঁচ ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের দ্বিতীয়টি শেষে সফরকারীরা ২-০তে এগিয়ে গেল।
ওপেনিং জুটিতে ইমরুল কায়েস এবং এনামুল হক বিজয় তুলে নেন ৫৬ রান। ব্যক্তিগত ২৬ রানে বিদায় নেন শ্রীলঙ্কা সিরিজে সুযোগ পাওয়া বিজয়। ইমরুল কায়েস করেন ৪০ রান। সিনিয়র এই ওপেনারের ৫৫ বলের ইনিংসে ছিল ৫টি বাউন্ডারি। তিন নম্বরে নেমে দলপতি মোহাম্মদ মিঠুন খেলেন ৮৫ রানের ইনিংস। লঙ্কান সিরিজ খেলতে উড়াল দেওয়ার আগে তার ৯৪ বলে সাজানো ইনিংসে ছিল ৫টি চার আর ৪টি ছক্কার মার। আগের ম্যাচে তিনি করেছিলেন ৩ রান।
মোহাম্মদ নাঈম ৫৭ বলে তিনটি চার আর একটি ছক্কায় করেন ৪৯ রান। শ্রীলঙ্কা যাওয়ার আগে সাব্বির রহমান নিজেকে কিছুটা ঝালিয়ে নিয়েছেন। ৩৮ বলে ৩৫ রান করার পথে সাব্বিরের ব্যাট থেকে আসে একটি করে চার ও ছক্কা। শ্রীলঙ্কা সিরিজে সুযোগ পাওয়া ফরহাদ রেজা ১ রান করেন। আফিফ হোসেন ৮, মেহেদি হাসান ১০, আবু হায়দার ৭*, শফিউল ইসলাম ০ আর আবু জায়েদ রাহি ১* রান করেন।
আফগানদের হয়ে বিশ্বকাপ খেলে আসা সৈয়দ শিরজাদ ও শরাফুদ্দিন আশরাফ একটি উইকেট করে, করিম জানাত তিনটি ও ফজল নিয়াজাই তিনটি করে উইকেট নেন।
২৭৯ রানের টার্গেটে ব্যাটিংয়ে নামা আফগান ওপেনার রহমানুল্লাহ গুরবাজ করেন ২১ রান। আরেক ওপেনার ইব্রাহিম জাদরান সেঞ্চুরি তুলে নেন। তার ১৪৯ বলে সাজানো ১২৭ রানের ইনিংসে ছিল সাতটি চার আর সাতটি ছক্কা। উসমান ঘানি ২৬, দলপতি নাসির জামাল ১১, দারউইস রাসুল ৭ রান করেন। করিম জানাত ২৪ রান করে বিদায় নেন। শরাফুদ্দিন আশরাফ ১৭ বলে দুটি চার, তিনটি ছক্কায় ৩৬ আর ফজল নিয়াজাই ৮ বলে একটি করে চার ও ছক্কায় ১৫ রান করে অপরাজিত থাকেন। এই জুটি শেষ ১৮ বলে ৩৭ রান তুলে নিয়ে অবিচ্ছিন্ন থাকেন।
টাইগারদের পেসার পেসার শফিউল ইসলাম দুটি, আবু জায়েদ রাহি, আবু হায়দার ও সাব্বির রহমান একটি করে উইকেট নেন।
একই মাঠে সিরিজের তৃতীয় ওয়ানডে ম্যাচটি ২৪ জুলাই অনুষ্ঠিত হবে। এর পর সাভারে আগামী ২৭ ও ২৯ জুলাই শেষ দুই ম্যাচে মুখোমুখি হবে দুই দল।