দেশে ইন্টারনেট বিস্তারে চীনা কোম্পানির সঙ্গে চুক্তি

15

দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলসহ সব এলাকায় দ্রুত গতির ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সেবা পৌঁছে দিতে চায়না রেলওয়ে ইন্টারন্যাশনাল গ্রুপের (সিআরআইজি) সঙ্গে চুক্তি করেছে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) অধিদপ্তর।
আইসিটি অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এ কে এম খায়রুল আলম ও চায়না রেলওয়ে ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের প্রধান প্রতিনিধি উই জিয়োজান রোববার আইসিটি টাওয়ারে এক অনুষ্ঠানে চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন।
আইসিটি অধিদপ্তরের অধীন ‘স্টাব্লিশিং ডিজিটাল কানেকটিভি’ শীর্ষক প্রকল্পটির ব্যয় ধরা হয়েছে আট হাজার কোটি টাকা। প্রকল্পটির মেয়াদকাল ২০১৯ সালের জানুয়ারি থেকে ২০২১ সালের জানুয়ারি।
চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার, আইসিটি বিভাগের সচিব জুয়েনা আজিজ, সিআরআইজির প্রেসিডেন্ট চেন শিপিং।
মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার জানান, প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে দেশের সর্বত্র একই দামে ইন্টারনেট সেবা পাওয়া যাবে। এছাড়া মাঠপর্যায়ের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সাড়ে ৩৫ হাজার শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাব স্থাপন করা হবে। এর মাধ্যমে ৭০ লাখ ছাত্রছাত্রী উপকৃত হবে। বার্তা সংস্থার খবর
এছাড়াও দেশের ৫৪টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে বিশেষায়িত জ্ঞান চর্চা ও গবেষণার জন্য উচ্চপ্রযুক্তির ল্যাব ও প্রযুক্তিসুবিধা স্থাপন করা হবে।
মোস্তাফা জব্বার বলেন, এই চুক্তির আওতায় ৬৪টি জেলা ও ৪৯১টি উপজেলায় আধুনিক আইসিটি প্রশিক্ষণ সুবিধাসম্পন্ন ল্যাব, আইসিটি অধিদপ্তরের সক্ষমতা বাড়াতে অত্যাধুনিক প্রযুক্তি সুবিধার ২১তলা ভবন নির্মাণ, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের আইসিটি বিষয়ে সক্ষমতা উন্নয়ন, কৃষি উৎপাদন বাড়াতে ১০০টি ডিজিটাল ভিলেজ স্থাপন এবং ১০ হাজার কৃষককে প্রযুক্তি বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে।