দেশের সব বিভাগে মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা সময়ের দাবি

12

এ কথা সত্য যে, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা চিকিৎসাসেবা মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছিয়ে দেয়ার খুবই আন্তরিক। চিকিৎসাবান্ধব প্রধানমন্ত্রীর একান্ত ইচ্ছায় দেশে চিকিৎসা ক্ষেত্রে একটা বৈপ্লবিক পরিবর্তন লক্ষ করা যায়। তাঁর একান্ত প্রচেষ্ঠায় বর্তামানে দেশে মানুষের গড় আয়ু অতীতের তুলনায় বেড়েছে। মেডিকেল কলেজসমুহ নার্সিং কলেজ প্রতিষ্ঠার কারণে নার্সিং পেশা মর্যাদাও গুরুত্বপূর্ণ পেশা হিসেবে স্বীকৃতি লাভ করেছে। তিনিই সর্ব প্রথম দেশে বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে দেশের চিকিৎসা বিজ্ঞানকে এগিয়ে নেয়ার সুব্যবস্থা করেন। পরে চট্টগ্রাম, রাজশাহী ও সিলেটে তিনি মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেন। বর্তমানে দেশে আটটি বিভাগ রয়েছে। তার মধ্যে ৪টি বিভাগে মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার পর বাকী বিভাগগুলোতেও মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার বিষয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা আশাব্যঞ্জক। দেশের সবকটি বিভাগে মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠিত হলে চিকিৎসাবিজ্ঞানে দেশ আরো এগিয়ে যাবে। প্রধানমন্ত্রীর এ আশাব্যঞ্জক ঘোষণার জন্য আমরা তাঁকে সাধুবাদ জানাই। দেশের সবকটি বিভাগে মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠিত হলে চিকিৎসার জন্য সমগ্র দেশের মানুষ নিজ নিজ বিভাগে সুচিকিৎসার সুফল ভোগ করবে। মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে চিকিৎসা বিজ্ঞানের গবেষণা নতুন নতুন চিকিৎসার পদ্ধতি আবিষ্কার হবে। ফলে চিকিৎসা বিজ্ঞানে দেশ বিশ্বের প্রেক্ষাপটে অগ্রগতি লাভ করবে। চিকিৎসা বিজ্ঞানে দেশ এগিয়ে যাওয়ার পাশাপাশি প্রতিটি বিভাগের মানুষকে ঢাকা-চট্টগ্রামে অধিক অর্থ ব্যয় করে দৌড়াতে হবেনা। এর ফলে দেশের মানুষের অনেক টাকা সাশ্রয় হবে। তারা কম খরচে নিজেদের বিভাগে বিশেষায়িত হাসপাতালসহ সব ধরনের চিকিৎসা সুযোগ ভোগ করতে পারবে। তবে চিকিৎসাক্ষেত্রে অগ্রগতির পাশাপাশি সরকার চিকিৎসাক্ষেত্রে যেসব দুর্নীতি এবং স্বেচ্ছাচারিতা রয়েছে সেগুলো কঠোর হাতে দমন করে সরকারি-বেসরকারি চিকিৎসা সেবাকে মান সম্পন্ন করতে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে। ডাক্তার ও প্রাইভেট চিকিৎসা সেক্টরে যেসব হয়রানি এবং অনিয়ম রয়েছে তা সরকার কঠোর হাতে দমন করতে হবে। দেশে চিকিৎসা বিষয়ে একটি সর্বজন গ্রহণীয় নীতিমালা প্রণয়ন ও তা কার্যকর করা হলে দেশের মানুষ দেশেই সুচিকিৎসা পাবে। যাতে সুষ্ঠু চিকিৎসার আশায় দেশের মানুষ আর বিদেশে পাড়ি জমাবে না।