দেওয়ানবাজার ওয়ার্ডে চসিকের ক্রাশ প্রোগ্রাম উদ্বোধন

17

দেওয়ানবাজার ওয়ার্ড-এর নালা-নর্দমা থেকে গত ১১ মার্চ মাটি উত্তোলন কর্মসুচি শুরু করেছে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন। মাসব্যাপি এ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ আ.জ.ম নাছির উদ্দীন। বর্ষার আগে জরুরি ভিত্তিতে ৪১টি ওয়ার্ডের নালা-নর্দমা থেকে মাটি-আবর্জনা পরিস্কার করার লক্ষ্যে এ কর্মসূচি আগামী ১১ এপ্রিল পর্যন্ত চলবে। সিটি কর্পোরেশনের নিজস্ব জনবল দিয়ে প্রতিদিন পাঁচ ওয়ার্ডে এই কর্মসুচি পরিচালিত হবে। এতে ২৫০ জন সেবক নিয়োজিত রয়েছে। মাসব্যাপি কর্মসুচির উদ্বোধনকালে উপস্থিত ছিলেন চসিক প্যানেল মেয়র কাউন্সিলর চৌধুরী হাছান মাহমুদ হাসনী, কাউন্সিলর শৈবাল দাশ সুমন, সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর আনজুমান আরা বেগম, চসিক প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সামসুদ্দোহা ও প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা শেখ শফিকুল মান্নান সিদ্দিকী। উদ্বোধনকালে সিটি মেয়র বলেন এবছরও চট্টগ্রামবাসী জলাবদ্ধতা থেকে মুক্তি পাবে না। এ ব্যাপারে আমি প্রধানমন্ত্রীকে অবহিত করেছি। জরুরি ভিক্তিতে সিটি কর্পোরেশনের উদ্যোগে নালা-নর্দমা থেকে মাটি উত্তোলনের কথা উল্লেখ মেয়র আরো বলেন, কিছুদিন আগে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমাকে বলেছেন তুমি ড্রেন করো। তাই আমরা চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন ড্রেন করছি। আগের যে ড্রেনগুলো ছিল, সেই ড্রেনগুলো অপর্যাপ্ত ও অপরিপূর্ণ। তাই চসিক নগরীতে পর্যাপ্ত ড্রেন নির্মাণ করছে। নগরবাসীর বাসা-বাড়ী থেকে ড্রেনে পানি আসবে, ড্রেন থেকে খালে। এরপর খাল হয়ে পানি নদীতে যাবে। পরিকল্পিত ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকলে পানি যাবে কোথায়, নগরীতে জলবদ্ধতা সমস্যা থেকেই যাবে। এ থেকে উত্তোরণের জন্য শহরে পরিকল্পিত ড্রেনেজ ব্যবস্থা নিশ্চিতকরণে কাজ করে যাচ্ছি। তিনি আরো বলেন, প্রতিদিন আমি নগরীর কোনো কোনো এলাকায় পরিদর্শন করছি। এ পরিদর্শনে আমি দেখেছি, নগরের বেশিরভাগ নালা ভরাট হয়ে আছে। নগরীর জলাবদ্ধতা নিরসনে মেগা প্রকল্প গ্রহণ করেছে চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তপক্ষ ২০১৭ সালে ২২ আগস্ট। এর আগে জোয়ারের পানি ধরে রাখার জন্য আরেকটি প্রকল্প গ্রহণ করে তারা। এখনো পর্যন্ত এগুলো থেকে আশানুরূপ কাজ হয়নি বলে তিনি উল্লেখ করেন। এ প্রসঙ্গে মেয়র বলেন, জলাবদ্ধতা নিরসনে এ সপ্তাহের মধ্যে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন, চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ ও দায়িত্বপ্রাপ্ত সেনাবাহিনীর সঙ্গে নিয়ে ত্রিপক্ষীয় এক বৈঠকের আয়োজন করবে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন। গত সোমবার ৫টি ওয়ার্ডের নালা নর্দমা থেকে ২১৫ টন মাটি উত্তোলন করা হয়। ওয়ার্ডগুলোর মধ্যে দেওয়ান বাজার থেকে ৩০ টন, আন্দরকিল্লা থেকে ৪৫ টন, জামাল খান থেকে ৩০ টন, দক্ষিণ পতেঙ্গা থেকে ৭৫ টন, উত্তর পতেঙ্গা থেকে ৩৫ টন মাটি উত্তোলন করা হয়। আগামী ১৪ মার্চ পর্যন্ত এ ওয়ার্ডগুলোতে এ মাটি উত্তোলন কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। বিজ্ঞপ্তি