দুরূহ দুপুর

মোহাম্মদ তোয়াহা

45

পোড়া কপাল মেহেদি পাতার পেল্লব রঙে রঙিন
ক’ফোঁটা অশ্রু জল হাতের মুঠোয় দুঃখ-কষ্টগুলো
ধরে রাখার যোগ্যতর পাত্র পাফা মাটিরহাঁড়ি
দুঃখগুলো সথীর্তদের আরাধ্য ছিল তারা
হাসিমুখে উড়ায় বিধবার বিক্ষিপ্ত কপোলে

ভাঁজে ভাঁজে সফেদ শাড়ির মতো শুধুই মন্ত্রণা
যন্ত্রণা ধ্রুপদী সুচি’র সুচারো ফাঁকে ফাঁকে
বুমেরাং তিথির গায়কী ডানা ঝাপটায়
নষ্টগুলো যেভাবে বিষ্টা চড়ায় চারিদিকে

একটু দূরে পুড়াগতরে ঢাকীরা বাবড়ি নাচায়
রোদ জলসানো দুরূহ দুপুর নাচে বাউলিয়া
সুর যেন শ্যামের লীলা পাঠে নগ্ন সারথী
ধ্রুব পরাকাষ্ঠায় কষ্টের শব্দেরা তা’ দেয়
কৃষ্ণকলি সময়ের ভেঙেপড়া মনগুলো।

টাইটনিক যবনিকা টানে সলিল ইতিহাসে
যেভাবে অনেক আগের গল্পে কথাগুলো
ছেঁড়া তারের ডুগডুগি অশ্রুতে ভেজা নিয়তি।